টিভি পর্দায়ঝকঝকে ছবি দেখাবে ডিজিটাল কেবল টিভি
টিভি পর্দায়ঝকঝকে ছবি দেখাবে ডিজিটাল কেবল টিভি
২০১৬-০২-০১ ১৩:৫২:৫২
প্রিন্টঅ-অ+


টিভি পর্দায় ঝকঝকে ছবি দেখিয়ে মন ভরাবে ডিজিটাল কেবল সেবা। দেশে প্রথম এ সেবা চালু করেছে বেঙ্গল ডিজিটাল। এই সেবায় ৭০-৭৫টি চ্যানেল নয়, দেখা যাবে দেশ-বিদেশের আড়াই শরও বেশি চ্যানেল। সব কটিই ঝকঝকে। রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ইতিমধ্যে এ সেবা চালুও হয়েছে।

এই সুবিধা পেতে ঘরে বসাতে হবে সাড়ে তিন হাজার টাকা দামের একটি যন্ত্র, নাম সেট টপ বক্স। বেঙ্গল ডিজিটালের কর্মকর্তারা জানান, এই সেবার মাধ্যমে ডিজিটাল কেব্ল ব্যবস্থায় প্রকৃত গ্রাহকসংখ্যা জানা যাবে। তাই রাজস্বও পুরোপুরি আদায় করতে পারবে সরকার।

প্রায় ৫২ বছর ধরে বাংলাদেশের মানুষ টিভি অনুষ্ঠান দেখার স্বাদ পাচ্ছেন। ১৯৬৪ সালে ছিল সাদা-কালোর একটি চ্যানেল। আশির দশকের শুরুতে যা রঙিন পর্দায় রূপ নেয়। আর ১৯৯২ সাল থেকে শুরু হয় ডিশ অ্যান্টেনার যুগ। এতে রয়েছে দেশ-বিদেশের রকমারি সব চ্যানেল। অ্যানালগ কেব্ল টিভির এই সেবায় খানিকটা ঘোলাটে ছবি, ঝড়-বৃষ্টিতে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়াসহ নানা ঝক্কি-ঝামেলা থাকে। সব মিলিয়ে অতৃপ্ত দর্শক, যেন মন ভরছিল না তাঁদের।

বেঙ্গল কমিউনিকেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ ওমর ফারুক বলেন, বেঙ্গল ডিজিটালের সেবায় বাড়িতে ডিটিএইচের মতো ছোট ডিশ অ্যান্টেনা বসাতে হবে না। আবার অ্যানালগ কেবল টিভি সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যবসায়ও বিঘ্ন ঘটবে না। অ্যানালগ সেবাদানকারীরা তাঁদের কেব্ল সংযোগ নেবেন। এরপর তাঁরাই কেব্ল দিয়ে দর্শকদের বাড়িতে সংযোগ দেবেন। এই কেব্ল যুক্ত হবে সেট টপ বক্সে। আর সেট টপ বক্সের মাধ্যমে টিভি অনুষ্ঠান দেখা যাবে।

জানা গেছে, ঝড়-বৃষ্টি কিংবা রাস্তার খননকাজে কেব্ল কাটা পড়লে বিকল্প ব্যবস্থায় সংযোগ চালু থাকবে। ছবি দেখাসহ যেকোনো ধরনের সমস্যা হলে বেঙ্গল ডিজিটালের কলসেন্টারে অভিযোগ করা হলে দ্রুততম সময়ে সমাধান পাওয়া যাবে।

বর্তমানে রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় এই ডিজিটাল কেব্ল টিভির সেবা পাওয়া যাচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে পুরো উত্তরা এলাকা, নিকুঞ্জ, বারিধারা ডিওএইচএস, নৌ সদর দপ্তর এলাকা, গুলশান, বনানী, মিরপুরের কিছু অংশ, মোহাম্মদপুর, লালমাটিয়া, ধানমন্ডি, আজিমপুর, বুয়েট ও কলাবাগান।

এ বছরের মাঝামাঝি পুরো ঢাকাতেই এই ডিজিটাল কেব্ল সেবা পাওয়া যাবে। এ বছরের শেষের দিকে বন্দরনগর চট্টগ্রামে এ সেবা চলে আসতে পারে।

সেট টপ বক্সে যা থাকবে: কোনো কাজে ব্যস্ত থাকলে দর্শকেরা তাঁদের পছন্দের অনুষ্ঠান সেট টপ বক্সে পেন ড্রাইভ বা পোর্টেবল হার্ডডিস্কে রেকর্ড করতে পারবেন। পরে অবসর সময়ে তা দেখা যাবে। তা ছাড়া একই সময়ে একটি টিভি সেটে মাল্টি চ্যানেল দেখতে পারবেন দর্শকেরা। হাই ডেফিনিশন (এইচডি) চ্যানেল, ভিডিও অন ডিমান্ডসহ নানা সুবিধাও পাওয়া যাবে এই সেট টপ বক্সের মাধ্যমে। চীনের তৈরি একটি সেট টপ বক্সের ওজন প্রায় দেড় কেজি। স্মার্ট কার্ড ও রিমোট কন্ট্রোল দিয়ে এটি পরিচালিত হবে।

প্যাকেজ আর খরচ: বেঙ্গল ডিজিটালের কর্মকর্তারা জানান, দর্শক চাহিদা, বয়স, রুচি ও ক্রয়ক্ষমতা বিবেচনা করে একাধিক চ্যানেলের বিভিন্ন প্যাকেজ রাখা হয়েছে এতে। ৩০০ টাকার প্যাকেজে ৯০টি চ্যানেল দেখা যাবে। এর মধ্যে বাংলাদেশের সব চ্যানেলসহ ৭০টি ফ্রি চ্যানেল রয়েছে। এ ছাড়া ২০টি পে-চ্যানেল থাকবে। অন্যদিকে ৬০০ টাকার প্যাকেজে বর্তমানে ১৫১টি চ্যানেল দেখা যাচ্ছে। এর মধ্যে বাংলাদেশি চ্যানেলসহ ৭৬টি ফ্রি চ্যানেল ও ৭৫টি পে-চ্যানেল রয়েছে। আগামী এপ্রিল মাসের মধ্যে এই প্যাকেজে ২৫০টি বিদেশি চ্যানেল দেখা যাবে বলে জানান ওমর ফারুক।

জানা গেছে, একটি সেট টপ বক্স দিয়ে একটি টিভিতে অনুষ্ঠান দেখা যাবে। তবে বাসায় দুটি টিভি সেট থাকলে পুরোনো অ্যানালগ লাইন থেকে ওই টিভিতে সংযোগ দেওয়া যাবে। এতে ৯০টির মতো চ্যানেল দেখা যাবে। সে ক্ষেত্রে খরচ কিছুটা বাড়বে। ৩০০ টাকার প্যাকেজসহ মোট খরচ হবে সাড়ে ৪৫০ টাকা। আর ৬০০ টাকার প্যাকেজে সব মিলিয়ে পড়বে ৭০০ টাকার মতো।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিবিধ এর অারো খবর