ফেবারিটদের মতোই শুরু করেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯
ফেবারিটদের মতোই শুরু করেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯
২০১৬-০১-২৭ ২২:৫৫:২৮
প্রিন্টঅ-অ+


অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ আফ্রিকার যুবাদের হারিয়ে ফেবারিটদের মতোই শুরু করেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯। চট্টগ্রামে টস জিতে আগে ব্যাট করে শান্তর অর্ধশতকে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৪০ রান তোলে বাংলাদেশ। প্রোটিয়া যুবাদের ১৯৭ রানে অলআউট করে ৪৩ রানের জয় তুলে নেয় মেহেদী হাসান মিরাজরা।
বাংলাদেশের দেয়া ২৪১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা আফ্রিকার শুরুটা ভাল হয়নি। দলীয় ৫ রানের মাথায় প্রথম আঘাত হানেন বাংলাদেশ দলপতি মিরাজ। ব্যক্তিগত ১ রান করে মিরাজের শিকারে পরিণত হন ওপেনার কাইল ভেরেন। নবম ওভারে দারুণ এক ডেলিভারিতে উইয়ান মুলডারকে (৮) বোল্ড করে সাজঘরে পাঠান মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। ১৫তম ওভারে আবার সাইফুদ্দিনের আঘাত। প্রোটিয়াদের অধিনায়ক টনি ডি জর্জিকেও (৮) বোল্ড করেন এই ডানহাতি পেসার। ২১তম ওভারে বাংলাদেশ চতুর্থ সাফল্য পায় অফস্পিনার সাইদ সরকারের সুবাদে। তার বলে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন রিভালদো মুনসামি (৫)।
এরপর স্রোতের বিপরীতে ব্যাট করে শতক তুলে নেন ওপেনার লিয়াম স্মিথ। ১৪৬ বলে ১০০ রান করে তিনি যখন সাজঘরে ফেরেন দলের রান তখন ৭ উইকেটে ১৭৭ রান। তার সেই শতক কোন প্রভাবই রাখতে পারেনি ম্যাচের ফলে। আর সব ব্যাটসম্যানের দারুণ ব্যর্থতায় শেষ পর্যন্ত ৪৮.৪ ওভারে ১৯৭ রানে গুটিয়ে যায় প্রোটিয়া যুবাদের ইনিংস। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২২ রান আসে ডাইয়ান গ্যালিয়েমের ব্যাট থেকে। বাংলাদেশের হয়ে ৩টি করে উইকেট নেন মিরাজ ও সাইফুদ্দিন। বাকি ৪টি উইকেট ভাগাভাগি করে নেন সাইদ সরকার ও সালেহ আহমেদ শাওন।
এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশের তরুণরা। নির্ধারিত ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ২৪০ রান। সর্বোচ্চ ৭৩ রান আসে নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাট থেকে। বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে দারুণ একটি সেঞ্চুরি করে মূল বিশ্বকাপেও দুর্দান্ত কিছু করার আভাস দিয়ে রেখেছিলেন শান্ত। প্রথম ম্যাচে সুযোগ পেয়েই ব্যাট হাতে জ্বলে উঠলেন তিনি। দলের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৬ রান করেন জয়রাজ শেখ ইমন। তিনি এগিয়ে যাচ্ছিলেন বড় রানের দিকেই। কিন্তু সেট হওয়ার পরও বড় রান করতে না পারার ব্যর্থতায় পুড়তে হয় তাকে।
ইমনের আগে একই রকম সম্ভাবনা জাগিয়ে তা বড় রান করতে ব্যর্থ হন ওপেনার পিনাক ঘোষও। তার ব্যাট থেকে আসে ৪৩ রান। প্রোটিয়াদের সফলতম বোলার উইয়ান মুলডার নেন ৩ উইকেট।
দিনের অপর ম্যাচে ফিজিকে ২৯৯ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। ইংলিশদের দেয়া ৩৭২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৭২ রানেই গুটিয়ে যায় ফিজির ইনিংস।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

ক্রীড়া এর অারো খবর