পড়ানোর সংজ্ঞা বদলাচ্ছেন বাঙালি ডিজিটাল শিক্ষিকা
পড়ানোর সংজ্ঞা বদলাচ্ছেন বাঙালি ডিজিটাল শিক্ষিকা
২০১৬-০১-২২ ২২:১৭:১৪
প্রিন্টঅ-অ+




পদার্থবিদ্যা, জীববিদ্যা, অঙ্ক ও রসায়ন। এই চার বিষয়ের উপরে সাড়ে চার হাজারেরও বেশি ভিডিও। দেশ জুড়ে ছড়িয়ে থাকা অসংখ্য ছাত্রছাত্রী সেগুলো দেখছে, শিখছে। নোটস নিয়ে পরীক্ষার জন্য তৈরি হচ্ছে। পুরোটাই বিনামূল্যে।

ধানবাদের বাঙালি গৃহবধূ রোশনী মুখোপাধ্যায় রীতিমতো ‘ডিজিটাল প্রাইভেট টিউটর’। তাঁর আপলোড করা এই সব ভিডিও দেখতে গেলে টাকা দিয়ে আলাদা করে গ্রাহক হতে হয় না। শুধুমাত্র ইন্টারনেট ডেটার খরচটুকু করলেই হলো। এই ‘ডিজিটাল প্রাইভেট টিউটর’-কে পুরস্কৃত করবেন স্বয়ং রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। বছর তিরিশের রোশনী বললেন, “এ বছর ১০০ জন ‘উইমেন অ্যাচিভার’ মনোনীত করেছে কেন্দ্রীয় সরকারের নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রক। আমি তাঁদের এক জন। কাল দিল্লিতে রাষ্ট্রপতি ভবনে গিয়ে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের কাছ থেকে পুরস্কার নেব।”

রোশনী জানিয়েছেন, পড়ানোর ইচ্ছে অনেক দিন ধরেই ছিল তাঁর। বিশেষ করে গরিব ছাত্রছাত্রীদের। পাড়ায় বা রেল স্টেশনে বিনা পারিশ্রমিকে পড়ানোর কথা আকছার শুনেওছেন তিনি। সব দেখেশুনে তাঁরও সাধ জাগে নিখরচায় পড়ানোর। কিন্তু সেই সঙ্গে তাঁর মনে প্রশ্ন জেগেছিল, ‘‘এ ভাবে একসঙ্গে কত জনই বা উপকৃত হয়?’’ তার পরেই ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিনা পারিশ্রমিকে পড়ানোর কথা মাথায় আসে। তাঁর কথায়, “এখন ডিজিটালের যুগ। তাই ভাবলাম এ বার পড়ানোর কাজটাও ডিজিটালেই করা যাক।” রোশনী জানান, এখন স্বামীর কাজের সূত্রে তিনি বেঙ্গালুরুতে রয়েছেন। ডিজিটাল শিক্ষিকা হওয়ায় বেঙ্গালুরু থেকে পড়াতে তাঁর কোনও অসুবিধা হয় না।

রোশনী জানালেন, তাঁর নোটস পেতে গেলে একটা স্মার্ট ফোন আর ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেই হবে। ওয়েবসাইটের নাম ‘এগ্জাম ফিয়ার ডট কম’। শুধু নোটস নয়, ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই পড়ুয়াদের নানা সমস্যা মিটিয়ে দিচ্ছেন রোশনী।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

শিক্ষা এর অারো খবর