উগ্রবাদ রুখতে প্রচারণায় ফেসবুক
উগ্রবাদ রুখতে প্রচারণায় ফেসবুক
২০১৬-০১-২০ ১৩:২৬:২৫
প্রিন্টঅ-অ+


‘ফেসবুক আইএনসি’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান সমগ্র ইউরোপ জুড়ে উগ্রবাদী পোষ্ট ও শরণার্থী বিরোধী লেখা নিয়ন্ত্রনে কাজ করবে। এমন তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

জার্মান কয়েকজন রাজনীতিবিদের অনুরোধে এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে রয়টার্সের খবরে বলা হয়।
ফেসবুক আইএনসি ফেসবুকের সঙ্গে একত্রে কাজ করে। আইএনসির কাজ হচ্ছে ফেসবুক মেসেঞ্জারের মতো বিভিন্ন সামাজিক অ্যাপস তৈরীর মাধ্যমে ফেসবুকের সঙ্গে মানুষের যোগাযোগ আরও বাড়ানো।

যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক এই প্রতিষ্ঠানটি ইতোমধ্যেই ‘ইনিশিয়েটিভ ফর সিভিল কারেজ অনলাইন’ নামে একটি কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। প্রায় ১০ লাখ মিলিয়ন অর্থ সহায়তার ঘোষণাও দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। যেসব বেসরকারী প্রতিষ্ঠান বর্ণবাদী এবং উগ্রবাদী পোস্টের বিরুদ্ধে কাজ করে তারা এর অর্থ পাবে বলে জানিয়েছে ফেসবুক আইএনসি।

ফেসবুকের প্রধান পরিচালক সের্লি সেন্ডবিয়ার্গ বলেছেন, ‘আমাদের সমাজে উগ্রবাদের একটুও যায়গা নেই! এমনকি ইন্টানেটেও।’

ফেসবুক ব্যবহারের মূল শর্ত ছিল উত্যক্ত, বিরক্ত এবং হুমকি থেকে বিরত রাখে এমন পোষ্ট দেওয়া থেকে বিরত থাকা। কিন্তু সমালোচনাকারীদের মতে এর যথাযথ প্রয়োগ হয়না।

শুক্রবার ফেসবুক আইএনসি জানায় তারা জার্মানে প্রকাশক ভাড়া করেছে যারা উগ্রবাদী পোষ্টগুলোতে লক্ষ্য রাখবে এবং সেইসব বর্ণবাদী পোষ্ট। কেটে দেবে। জার্মান রাজনৈতিক নেতা এবং সেলিব্রেটিরা এই বিষয়টিকে প্রথম গুরুত্বের সঙ্গে দেখেছিলেন। ফেসবুকে কমেন্টস, পোষ্ট এবং অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উগ্রবাদী মনোভাবাপন্ন কিছু যেন না থাকে তাই তারা কাজ করে যাচ্ছেন। দেশটিতে এখনো প্রায় ১১ লাখের মতো শরণার্থী রয়েছে।

জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেল ফেসবুককে এই বিষয়ে আরও উদ্যোগী হতে বলেছেন। ফেসবুককে সঙ্গে নিয়ে আইনমন্ত্রী একটি টাস্কফোর্স তৈরি করেছেন, যার মূল ‍উদ্দেশ্য অপরাধীদের সনাক্ত করে তাদের পোষ্ট দ্রুত সরিয়ে ফেলা।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি এর অারো খবর