পতাকা অবমাননা করায় সমালোচনার মুখে টেলিটক
পতাকা অবমাননা করায় সমালোচনার মুখে টেলিটক
২০১৬-০১-১৮ ১৫:১৬:৫৭
প্রিন্টঅ-অ+


চলমান বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজ নিয়ে একটি ছবি প্রকাশ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে সরকার পরিচালিত মোবাইল কোম্পানি টেলিটক।

জানুয়ারির ১৫ তারিখে টেলিটক থ্রিজির ফেসবুক পেইজে প্রকাশ করা ওই ছবিতে দেখা যায় একজন লোক জিম্বাবুয়ের পতাকাকে চুন নিয়ে মুছে সাদা করে দিচ্ছেন। ছবিটিকে বাংলাওয়াশের প্রতীকী ছবি হিসেবে প্রকাশ করা হয়। ক্যাপশনে লেখা হয়, ‘টি-টোয়েন্টি ফর্মেটে হবে এবারের এশিয়া কাপ। বলতে গেলে সেটারই প্রস্তুতি হিসেবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৪ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের আয়োজন! ক্রিকেটের উন্মাদনায় আবারো মেতেছে সারা বাংলাদেশ! আরেকটি বাংলাওয়াশের অপেক্ষা!’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপর একটি দেশের পতাকাকে এভাবে অবমাননা করায় সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

তন্ময় আহমেদ নামে একজন টেলিটকের এই পোস্টের প্রতিবাদ করে লিখেছেন, ‘একটি দেশের জাতীয় পতাকা এমন করে সাদা রঙ দিয়ে মুছে দেওয়া কোন ধরনের সভ্যতা? এই জিম্বাবুয়ের কাছে যখন আমরা নিয়মিত হারতাম তখন কি তারা আমাদের পতাকা মুছে দিয়েছিল?’

ফেসবুকে অনেকেই বিষয়টিকে ‘অজ্ঞতার পরিচায়ক’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

আবু ফয়সাল মো. পারভেজ নামের একজন লিখেছেন, ‘পতাকার অপমান একটি জাতির অপমান, টেলিটকের সেটা বোঝা উচিৎ ছিল।’

রাহুল খান নামের একজন লিখেছেন, ‘নিজেরা সামান্য সমালোচনাও সহ্য করতে পারি না। অথচ বাংলাওয়াশের নাম কইরা অন্য দেশের পতাকা মুইছা দেওয়ার ট্রেন্ড চালু কইরা ফেলছি।’

হাসিবুল হক মুন লিখেছেন, ‘এই ছবিটা ঠিক হয়নি। এই ধরনের ছবি আমি সমর্থন করি না। একটা দেশের জাতীয় পতাকাকে অসম্মান করা হচ্ছে না?’

মাকসুদুর রহমান লিখেছেন, ‘টেলিটক একটি জাতীয় ফোন কোম্পানি। মানে টেলিটক দেশের মানুষকে রিপ্রেজেন্ট করে। অন্য আরেকটি দেশের জাতীয় পতাকা এইভাবে মুছে দেওয়া পোস্ট টেলিটকের মতো মোবাইল কোম্পানির কাছ থেকে কোনওভাবেই আশা করা যায় না। আশা করবো, টেলিটক থ্রিজি এই পোস্টটি প্রত্যাহার করে নেবে।’

সাধারণ নাগরিক ও টেলিটক ইউজার হিসেবে এই পোস্টের প্রতিবাদ করে তিনি আরও লিখেন, ‘দেশের ফোন কোম্পানি হিসেবে টেলিটক আমাকে প্রতিনিধিত্ব করে। যে ফোন আমাকে প্রতিনিধিত্ব করে, সেই ফোন এইরকম একটি দায়িত্ব জ্ঞানহীন পোস্ট দিতে পারে এটা মেনে নেওয়া যায় না।’

আইয়ুব শেখ নামের একজন টেলিটককে এই ছবিটি সরিয়ে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘টেলিটকের উচিৎ এই পোস্ট ডিলিট করে ক্ষমা চাওয়া।’

এ বিষয়ে জানার জন্য টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জিয়াস উদ্দিনকে ফোন করলে তার মোবাইলটি বন্ধ পাওয়া যায়।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

ক্রীড়া এর অারো খবর