কুকুরের ডায়ালিসিস কেন্দ্র!
কুকুরের ডায়ালিসিস কেন্দ্র!
সংগীতা ঘোষ
২০১৬-০১-০৭ ১৫:০৮:২৯
প্রিন্টঅ-অ+


বিতর্কটা শুরু হয়েছিল ‘ভিআইপি’ এক কুকুরকে ঘিরে । আর তারই ‘সুফল’ পেতে চলেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের তাবৎ সারমেয়কুল। বেলগাছিয়ায় রাজ্য প্রাণী-মৎস্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়ে শিগগিরই গড়ে উঠতে চলেছে কুকুরের ডায়ালিসিস কেন্দ্র।

অভিযোগ রয়েছে, রাজ্যের একমাত্র সরকারি সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালটিতে পরিচিত এক পরিবারের পোষ্য কুকুরের ডায়ালিসিস করাতে উঠেপড়ে লেগেছিলেন তৃণমূলের চিকিৎসক-বিধায়ক নির্মল মাজি। রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিল ও চিকিৎসক সংগঠন আইএমএ-র প্রধান হওয়ায় সরকারি হাসপাতালে তাঁর প্রতিপত্তিটাও ব্যাপক। এর জোরেই মানুষের হাসপাতালে কুকুরের চিকিৎসা করানোর মতো বিস্ময়কর ও বিপজ্জনক উদ্যোগও কার্যকর করার বন্দোবস্ত প্রায় পাকা হয়ে গিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট ডাক্তারের আপত্তি ও সংবাদমাধ্যমে হইচইয়ের জেরে তা আর হয়ে ওঠেনি। তবে নির্মল মাজি হাল ছাড়েননি। বরং তখনই জানিয়ে দিয়েছিলেন, পশু হাসপাতালে কুকুরের ডায়ালিসিস যন্ত্র বসানো হবে। শুনিয়েছিলেন মনীষী-বাণী— ‘জীবে প্রেম করে যেই জন…।’

এ বার নির্মল মাজির পরিকল্পনার সূত্র ধরেই বেলগাছিয়ার প্রাণী বিশ্ববিদ্যালয়ে কুকুরের ডায়ালিসিস ইউনিট তৈরি হচ্ছে বলে রাজ্য পশু ও প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য পূর্ণেন্দু বিশ্বাস বলেছেন, ‘আমাদের ক্যাম্পাসে কুকুরের ডায়ালিসিস কেন্দ্র তৈরি হবে। সরকারি উদ্যোগে পশ্চিমবঙ্গে এই প্রথম।’

উপাচার্য অবশ্য এটিকে নির্মল মাজির পরিকল্পনা হিসেবে দেখতে রাজি নন। তার দাবি ‘এ আমাদের দীর্ঘ দিনের ভাবনার ফসল।’

তার কথায়, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে কুকুরের ডায়ালিসিস কেন্দ্র, ইন্ডোর চিকিৎসাকেন্দ্র ইত্যাদি গড়তে ২০১৫-১৬ অর্থবর্ষের গোড়ার দিকে আমরা সরকারকে প্রস্তাব পাঠিয়েছিলাম। এটা কেন্দ্রীয় প্রকল্প। তবে প্রায় অর্ধেক দায়ভার রাজ্যের। রাজ্যকেই প্রস্তাব পাঠাতে হয়।’

উপাচার্য জানান, বেলগাছিয়ার ক্যাম্পাসে ডায়ালিসিস ইউনিটের পাশাপাশি কুকুরের জন্য চার শয্যার ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটও চালু হবে। উপরন্তু থাকবে বিশ শয্যার অন্তর্বিভাগ (ইনডোর), যেখানে পশুদের ভর্তি করে নিয়ে চিকিৎসা করা যাবে।

তিনি জানান, মালিকরা সাধারণত পোষ্যকে হাসপাতালে রেখে যেতে চান না। তাই এতদিন ইনডোর পরিকাঠামো সে ভাবে গড়ে ওঠেনি। ইদানীং অনেকে বুঝছেন যে, চিকিৎসার স্বার্থেই পোষ্যকে হাসপাতালে রাখা জরুরি।

রাজ্যের প্রাণিসম্পদ বিকাশমন্ত্রী স্বপন দেবনাথ বলেন, ‘সব ধরনের গৃহপালিত পশুর চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে বেলগাছিয়ায়। ডায়ালিসিস ইউনিটসহ কয়েকটি প্রকল্পে অর্থ বরাদ্দ হয়েছে। এ বার কাজ শুরু হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানিয়েছে, ডায়ালিসিস ইউনিটসহ অন্যান্য প্রকল্প বাবদ প্রাথমিক ভাবে রাষ্ট্রীয় কৃষিবিকাশ যোজনা থেকে ৫০ লক্ষ টাকা এসেছে। রাজ্য সরকার কিছু দেবে। টেন্ডার হয়ে গিয়েছে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিচিত্রিতা এর অারো খবর