এরই নাম প্রেম !
এরই নাম প্রেম !
সংগীতা ঘোষ
২০১৬-০১-০৭ ১৫:০৫:৩৭
প্রিন্টঅ-অ+


মানুষের জীবনে প্রেমের অবদান কতখানি তা বলে দেয়া মুশকিল। তবে এটা বলা যায় কেউ তার জীবন চিন্তা করতে পারেন না প্রেম ছাড়া। তাই প্রেমিক-প্রেমিকারা একে অন্যকে ভরিয়ে দেন নানা উপহার৷ আর সে উপহার যদি কিডনি হয় তাহলে তো কোনো কথাই নেই।

হ্যাঁ প্রিয় পাঠক, প্রেমিককে বাঁচাতে এমনই এক উপহার ঠিক করেছেন এক প্রেমিকা ৷ ৪৯ বছর বয়সী জ্যাক সিমার্ডকে কিডনি উপহার দিয়েই ভালোবাসা দিবসে সেলিব্রেট করবেন তাঁর প্রেমিকা মিশেল লাব্রাঞ্চ।

৪৯ বছর বয়সে হ্যামসফায়ারের বাসিন্দা এই ব্যক্তির দ্বিতীয়বার কিডনি ট্রান্সপ্ল্যান্ট হচ্ছে ৷ দিন ঠিক হয়েছে ১৪ ফেব্রুয়ারি ৷ বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে তাঁকে কিডনি দিচ্ছেন।

তবে চিকিৎসকরা নানা বিষয় খতিয়ে দেখে এ অনুমতি দেন। এক্ষেত্রে চিকিৎসকরাও অবাক হয়েছেন বিষয়টি নিয়ে। তারা জানিয়েছেন সমস্ত শর্ত পূরণ হয়েছে। পারফেক্ট ম্যাচ কথাটা যে শুধুই কথার কথা নয়, তাও যেন আরও একবার দেখা গেল।

১৯ বছর বয়সে সিমার্ডের প্রথমবার কিডনি প্রতিস্থাপন হয়। তখন কিডনি দেন তাঁর বোন। দ্বিতীয়বার আবারও তার প্রয়োজন হলে, কিডনিদাতার খোঁজ শুরু করেন তিনি। মাইকেল তথন নিজেই টেস্ট করান। দেখেন তিনি প্রেমিককে কিডনি দিতে পারবেন কি না। ডাক্তারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়া মাত্র সিদ্ধান্ত নেন, প্রেমিককে ভালোবাসা দিবসে কিডনি উপহার দেবেন।

সত্যিই এমন প্রেমই তো আমরা চাই। আধুনিক সভ্যতার এই সময়ে এমন প্রেম কয়জনের কপালে জুটে! অভিনন্দন সিমার্ড ও মিশেল।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বাস্থ্য এর অারো খবর