তারানা সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন ফেসবুকের সঙ্গে বৈঠক করতে
তারানা সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন ফেসবুকের সঙ্গে বৈঠক করতে
সংগীতা ঘোষ
২০১৬-০১-০৩ ১০:৫৯:১৪
প্রিন্টঅ-অ+


ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বাংলাদেশে একটি এডমিন প্যানেলের জন্য সামাজিক নেটওয়ার্ক সাইটের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষরে তার প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে সিঙ্গাপুরে ফেসবুক কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন। খবর বাসসের।

তারানা হালিম জানান, তিনি ফেসবুক কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করতে এ মাসেই সিঙ্গাপুরে যাচ্ছেন। সফরকালে তিনি মাইক্রোসফট এবং কয়েকটি টেলিযোগাযোগ কোম্পানিও পরিদর্শন করবেন।

তিনি বলেন, আমরা ফেসবুকের সঙ্গে একটি চুক্তিতে উপনীত হতে এবং বাংলাদেশে সামাজিক টেনওয়ার্কিং সাইটের জন্য একটি এডমিন প্যানেল করার চেষ্টা করছি। তিনি বলেন, আমরা দীর্ঘ মেয়াদী দুটি লক্ষ্যই অর্জন করতে চাই।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের কর্মকর্তারা বলেন, প্রতিমন্ত্রী দু’সপ্তাহের সফরে আগামী ১০ জানুয়ারি সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়া যাবেন।

ফেসবুকের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের অংশ হিসেবে তিনি দু’দেশের টেলিযোগাযোগ ও আইসিটি মন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। এ সময় তিনি টেলিটককে একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে একটি হাইপারফরম্যান্স বিজনেস মডেল চালু করতে তাদের কাছে পরামর্শ চাইবেন।

মালয়েশিয়ায় প্রভাবশালী মোবাইল অপারেটরদের মধ্যে টেলিটক মালয়েশিয়া একটি।

তারানা হালিম ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত হওয়ার পর সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইটে নারীসংক্রান্ত অপরাধ, ভুয়া আইডি, হুমকি এবং অন্যান্য অপব্যবহার বন্ধের উপায় খুঁজে বের করতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন।

তারানা হালিম গত ৩০ নভেম্বর নেটওয়ার্কের অপব্যবহার করে কয়েকজন নারীকে কিভাবে আত্মহত্যায় উদ্বুদ্ধ করেছে, দৃষ্টান্ত হিসেবে তার উল্লেখ করে পত্র লিখেন। এতে তিনি বলেন, বাংলাদেশের মহিলাদের বিশেষ করে তরুণীদের ছবি আপত্তিজনক আপলোড করা হচ্ছে। পরবর্তীতে গত ৬ ডিসেম্বর ফেসবুক দক্ষিণ এশীয় পাবলিক পলিসি ম্যানেজার দীপালী লিবারহেন এবং দক্ষিণ এশিয়ায় আইন প্রয়োগ বিশেষজ্ঞ বিক্রম লঙ্গে ঢাকায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, তারানা হালিম, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এবং নিরাপত্তা সংস্থার কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন।

তারানা হালিম এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, বাংলাদেশে ফেসবুককে তার নীতি কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ একটি স্বাধীন দেশ। এখানে প্রত্যেককে আইন মেনে চলতে হবে। বাংলাদেশে ফেসবুকের নীতি কঠোরভাবে মেনে চললে নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা এবং সাইবার ক্রাইম উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পেতে পারে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ফেসবুকের জন্য একটি বড় বাজার। তারা জানে এই দেশে ফেসবুকের স্বার্থ আছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, তিনি ঢাকায় ফেসবুকের সিইও মার্ক জুকারবার্গকে দেখতে চান।

এর আগে গত ২২ নভেম্বর বাংলাদেশ সরকার নিরাপত্তাজনিত কারণে ফেসবুক এবং কয়েকটি সামাজিক নেটওয়ার্কের ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করে। ১০ ডিসেম্বর এটি তুলে নেয়া হয়।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর