বুয়েট অ্যালামনাই ২০১৬ এর গ্র্যান্ড রিইউনিয়ন অনুষ্ঠিত
বুয়েট অ্যালামনাই ২০১৬ এর গ্র্যান্ড রিইউনিয়ন অনুষ্ঠিত
সংগীতা ঘোষ
২০১৬-০১-০১ ১০:০৯:৫৬
প্রিন্টঅ-অ+


বুয়েট প্রকৌশলীরা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কৃতিত্ব ও দক্ষতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু গ্লোবাল র‍্যাংকিংয়ে বুয়েটকে এখনো দেখা যায় না। গ্লোবাল র‍্যাংকিংয়ে পৌঁছানোর লক্ষ্য নিয়ে বুয়েটকে কাজ করতে হবে।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) অ্যালামনাই ২০১৬-এর গ্র্যান্ড রিইউনিয়নের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তাগণ এসব কথা বলেন।
শুক্রবার (০১ জানুয়ারি) সকালে বুয়েটের মাঠে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) অ্যালামনাই ২০১৬-এর গ্র্যান্ড রিইউনিয়নের উদ্বোধন করা হয়েছে।

প্রধান অতিথি ও বুয়েটের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইকবাল মাহমুদ এর উদ্বোধন করেন।

এ সময় তিনি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অ্যালামনাইয়ের চিত্র তুলে ধরে বলেন, আমাদের স্বপ্ন দেখতে হবে। স্বপ্ন মানুষকে উন্নতি, অগ্রগতি ও আবিষ্কারের দিকে নিয়ে যায়।

বুয়েটের মাঠে অনুষ্ঠিত অ্যালামনাই ২০১৬ এর গ্র্যান্ড রিইউনিয়ন প্রতিষ্ঠানটির সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে।

অধ্যাপক ড. ইকবাল মাহমুদ তার বক্তৃতায় স্মৃতিচারণ করে বলেন, বুয়েটের মাঠ, ভবন, পরিবেশ, কার্যক্রম, কাজের মান সবই আগের মতো আছে। প্রযুক্তির ছোঁয়ায় হয়তো অনেক কিছুই বদলেছে, কিন্তু বেসিক পরিবর্তন হয় নাই। বুয়েট সেই আগের মতো প্রাণবন্তই আছে।

বুয়েট অ্যালামনাইয়ের সভাপতি অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিদফতরের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. দেলেয়ার হোসেন, অ্যালামনাইয়ের সেক্রেটারি প্রকৌশলী ড. সাদিকুল ইসলাম ভূঁইয়া ও কমিটির কনভেনর প্রকৌশলী মুনিরুদ্দিন আহমেদ।

অনুষ্ঠানের সভাপতি অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী বলেন, বুয়েটের গুণগত মান নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। তবে আরও সামনের দিকে এগোতে হবে। গ্লোবাল র্যাং কিংয়ে বুয়েটকে এখনো দেখা যায় না। আমরা যেন গ্লোবাল র্যাং কিংয়ে পৌঁছাতে পারি, সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, আমাদের নতুন নতুন উদ্ভাবনীর দিকে নজর দেওয়া উচিত। প্রকৃতির প্রতি যত্নবান হতে হবে। টেকসই ও সবুজ উন্নয়নের কথা এখনই ভাবা দরকার।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন- বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিদফতরের পরিচালক ও বুয়েট অ্যালামনাইয়ের সমন্বয়ক অধ্যাপক ড. মো. দেলেয়ার হোসেন।

আরও বক্তব্য দেন- বুয়েট অ্যালামনাইয়ের সেক্রেটারি প্রকৌশলী ড. সাদিকুল ইসলাম ভূঁইয়া। সবশেষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন গ্র্যান্ড রিইউনিয়ন কমিটির কনভেনর প্রকৌশলী মুনিরুদ্দিন আহমেদ।

বুয়েটের সাবেক শিক্ষার্থী ও সবচেয়ে বয়স্ক প্রকৌশলী ইমাম উদ্দিন চৌধুরী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে স্মৃতিচারণ করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কৃতিত্বের সঙ্গে কাজ করা শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। সবশেষে অতিথিরা বেলুন উড়িয়ে দিনব্যাপী এ গ্র্যান্ড রিইউনিয়নের উদ্বোধন করেন। এরপর শুরু হয় ক্রীড়া অনুষ্ঠান। দিনব্যাপী বুয়েট অ্যালামনাইয়ের গ্র্যান্ড রিইউনিয়নে স্মৃতিচারণ, র‍্যাফেল ড্র ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

শিক্ষা এর অারো খবর