রোবট গবেষণায় এগিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা
রোবট গবেষণায় এগিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা
সংগীতা ঘোষ
২০১৫-১২-২৯ ০৬:২৩:৪২
প্রিন্টঅ-অ+


রোবট নিয়ে গবেষণার অন্ত নেই৷ এই যন্ত্রের মধ্যে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা স্থাপনের কাজেও অনেকটা এগিয়েছেন বিজ্ঞানীরা৷ পশ্চিমা বিশ্ব রোবট নিয়ে গবেষণায় এগিয়েছে অনেক৷ বাংলাদেশও এক্ষেত্রে অবদান রাখার চেষ্টা করছে৷

বাঙালি রোবট তৈরি করে ২০১৩ সালে সাড়া জাগায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিকাল বিভাগের দুই শিক্ষার্থী৷ সাদলী সালাহউদ্দিন ও সৌমিন ইসলামের এই রোবটকে বাংলায় ‘ডানে যেতে বললে সেটি ডানে যেতে পারে৷ বাংলা ভাষা বোঝা এই রোবট দেখতে ছোট হলেও এটির কাজের ক্ষেত্র হতে পারে অনেক৷ এমনকি হাজার হাজার মাইল দূর থেকেও এটিকে নিয়ন্ত্রণ সম্ভব৷

মাত্র তিন হাজার টাকায় বাংলা জানা এই রোবট তৈরি সম্ভব বলে জানান সাদলী৷ তাঁরা চান, বিনোদন নয় বরং মানব কল্যাণে এই রোবট ব্যবহার করতে৷ বিশেষ করে হুইল চেয়ার হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে এমন রোবট৷

বাংলা বলা রোবটেই সীমিত নেই বাংলাদেশের রোবট গবেষণা৷ চলতি বছরের শুরুতে বাংলার আকাশে সফলভাবে মনুষ্যবিহীন ড্রোন উড়াতে সক্ষম হন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (সাস্ট) চার শিক্ষার্থী৷ তিন ফুট লম্বা এই বিমান তৈরি করেছেন সৈয়দ রেজওয়ানুল হক, রবি কর্মকার, মারুফ হোসেন ও সৈয়দ উমর ফারুক৷ তাঁদের সহায়তা করেছেন সাস্টের অনেক শিক্ষার্থী৷

এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে, সাস্টের ড্রোন আকাশে ওড়ার পর এ ব্যাপারে এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বাংলাদেশ আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)৷ বিবৃতিতে ড্রোন উড্ডয়নে বিধিবিধান মানার অনুরোধ জানানো হয়৷ ড্রোনের সঙ্গে বেসামরিক বা সামরিক বিমানের ধাক্কা লাগার শঙ্কা তাদের!

শুধু আকাশ নয়, পানির নীচে চলাচল উপযোগী রোবট নিয়েও গবেষণা হচ্ছে বাংলাদেশে৷ অ্যামেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (এআইইউবি) চার শিক্ষার্থীর তৈরি করেছেন রোবট সাবমেরিন৷ এই রোবট ব্যবহার করে সমুদ্রের গভীরে অনুসন্ধান চালানো সম্ভব হবে৷

রোবট নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায়ও হাজির হচ্ছেন বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা৷ চলতি বছরের শুরুতে ভারতের বাণিজ্য নগর মুম্বইয়ে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক রোবটিক্স চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় ‘রানার আপ হয় বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের তৈরি একটি প্রকল্প৷ আর গত বছর নাসার লুনাবোটিকস মাইনিং প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া পঞ্চাশটি দেশের মধ্যে ছিল বাংলাদেশও৷

এভাবে রোবট গবেষণায় এগিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা৷ পরিধি সীমিতি হলেও উদ্যোগ ক্রমশ বাড়ছে৷

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

শিক্ষা এর অারো খবর