সুখ ও সমৃদ্ধিবিষয়ক মন্ত্রীই এখন জনগণের জীবনের অশান্তির কারণ!
সুখ ও সমৃদ্ধিবিষয়ক মন্ত্রীই এখন জনগণের জীবনের অশান্তির কারণ!
২০১৭-১২-১৫ ০৩:১২:২৩
প্রিন্টঅ-অ+


ভারতের মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের সুখ ও সমৃদ্ধিবিষয়ক মন্ত্রী লাল সিং আর্যর কাজ হলো রাজ্যের সুখ-শান্তি বজায় রাখা। আর সেই মন্ত্রীই এখন জনগণের জীবনের অশান্তির কারণ! হত্যার মামলার আসামি হিসেবে লাল সিংকে এখন খুঁজছে পুলিশ।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, লাল সিং আর্যকে গ্রেপ্তার করার জন্য আদালত গত মঙ্গলবার আদেশ দেন। ৫৩ বছর বয়সী মন্ত্রী ওই দিন থেকেই গা-ঢাকা দিয়েছেন। ২০০৯ সালে বিরোধী দলের এক নেতাকে হত্যার ঘটনায় লাল সিংকে আসামী করা হয়েছিল। ওই মামলাতেই এখন তাঁকে খোঁজা হচ্ছে। অবশ্য প্রথম থেকেই সব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন সুখ বিষয়ক এই মন্ত্রী।

ভারতের একমাত্র মধ্যপ্রদেশ রাজ্যেই সরকারিভাবে সুখ বিষয়ক দপ্তর খোলা হয়। মূলত রাজ্যের নাগরিকদের কল্যাণ সাধনের জন্যই এ বিভাগ খোলা হয়েছিল। ২০১৬ সালের জুলাই মাসে রাজ্যের বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকার এই বিভাগের উদ্বোধন করে। আনুষ্ঠানিকভাবে এর কাজ হলো, ‘নাগরিকদের সুখ ও সহনশীলতা নিশ্চিত করা’ এবং ‘এমন একটি পরিবেশ তৈরি করা যাতে সাধারণ মানুষ নিজেদের অন্তর্নিহিত কল্যাণের সম্ভাবনা উপলব্ধি করতে পারে।’

সুখ বিষয়ক দপ্তর বাদে আরও পাঁচটি দপ্তর সামলান লাল সিং। সাধারণ প্রশাসন, বেসামরিক বিমান চলাচল এবং বিভিন্ন সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ও ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠীর কল্যাণে গঠিত দপ্তরের প্রধানও তিনি। উদ্বোধনের পর থেকেই সুখ বিষয়ক দপ্তরের প্রধান ছিলেন তিনি।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, আদালত আগামী ১৯ ডিসেম্বর লাল সিংয়ের হাজিরা দেওয়ার দিন ধার্য করেছেন। স্থানীয় পুলিশের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, পুলিশ তাঁকে খুঁজছে। আমরা আশা করছি, তাঁকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হবে।

ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম রাজ্য হলো মধ্যপ্রদেশ। এ রাজ্যের অধিবাসীর সংখ্যা ৭ কোটিরও বেশি। এ রাজ্যে সুখ বিষয়ক ইনস্টিটিউটও প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। দপ্তরের কাজে এই ইনস্টিটিউট সহায়তা করে থাকে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিদেশ এর অারো খবর