তথ্যপ্রযুক্তিতে আয়ের লক্ষ্য ৫০০ কোটি ডলার
তথ্যপ্রযুক্তিতে আয়ের লক্ষ্য ৫০০ কোটি ডলার
২০১৭-১১-২০ ০১:৪৬:৪২
প্রিন্টঅ-অ+


২০২১ সাল নাগাদ তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশের আয় ৫০০ কোটি মার্কিন ডলারে পৌঁছানোর লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। গত বছরে এ খাত থেকে প্রায় ৮০ কোটি মার্কিন ডলার আয় এসেছে যা আগামী বছরের জুন মাস পর্যন্ত ১০০ কোটি মার্কিন ডলারে পৌঁছাবে।

গত ১৬ নভেম্বর ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭ উপলক্ষে ঢাকায় সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে জানতে চাইলে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ এ কথা জানান।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ জানান, বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তি খাতে দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। ইউরোপের দেশগুলোর পাশাপাশি, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, রাশিয়া ও ভারত থেকে তথ্য প্রযুক্তি খাতের আয় আসছে।

আগামীর সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করা এবং এ জন্য দেশীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতার ক্ষেত্র প্রস্তুত করতে ৬ ডিসেম্বর থেকে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু হচ্ছে চার দিনের তথ্যপ্রযুক্তি প্রদর্শনী।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এবারের আয়োজনে ৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে মন্ত্রীদের বিশেষ সম্মেলন। সৌদি আরব, ফিলিপাইন, আফগানিস্তান, কঙ্গো ও মালদ্বীপরে মন্ত্রীরা অংশ নেবেন। এবারে প্রায় ২০০ বক্তা বিভিন্ন সেমিনারে অংশ নিচ্ছেন। এর মধ্যে গুগল, ফেসবুক, নুয়ান্স, মটোরোলা, কোয়ালকমের কর্মকর্তারা আছেন।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ জানান, এবারের তথ্যপ্রযুক্তি মেলায় সোফিয়া রোবটকে আনার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। হংকংয়ের একটি কোম্পানি ‘হ্যান্সন রোবোটিকস’ সোফিয়া নামের রোবটটি তৈরি করেছে। সম্প্রতি রোবটটিকে সৌদি নাগরিকত্ব দেওয়া নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটে নানা প্রতিক্রিয়া দেখা যায়।

জুনাইদ আহমেদ জানান, ৫০০ কোটি মার্কিন ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে দক্ষ মানব সম্পদ তৈরির পাশাপাশি প্রযুক্তি খাত উন্নয়নে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়ানোর জন্য সহজ নীতিমালাসহ বিভিন্ন সুবিধা দেওয়া হবে।

বাংলাদেশে সাইবার নিরাপত্তার উন্নতি প্রসঙ্গে জুনাইদ আহমেদ প্রথম আলোকে জানান, প্রযুক্তিক্ষেত্রে বাংলাদেশে উন্নত হওয়ায় সাইবার নিরাপত্তার ঝুঁকিও স্বাভাবিকভাবে বাড়ছে। এ ক্ষেত্রেও প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। বাংলাদেশ এখনো পর্যাপ্ত সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ নেই। তাই সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ তৈরিতে প্রশিক্ষণ দিতে কাজ করছে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। আমাদের অর্থনীতির আকার ২৪ হাজার ৬০০ কোটি মার্কিন ডলারের। গত কয়েক বছরে আমাদের প্রবৃদ্ধি সাত শতাংশের ওপরে। তাই আমাদের সাইবার নিরাপত্তার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিতে হবে। এবারের ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে তথ্য প্রযুক্তি প্রদর্শনীর পাশাপাশি সাইবার নিরাপত্তা নিয়েও বিশেষ আয়োজন করা হয়েছে।

এবারের মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত। সকাল ৯ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত মেলা চলবে। ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে প্রবেশের জন্য অগ্রিম নিবন্ধন করতে হবে, www.digitalworld.org.bd এই ওয়েবসাইট থেকে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আয়োজনে এ মেলা আয়োজনে সহযোগিতা করছে বেসিস, বিসিসি ও এটুআই।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিবিধ এর অারো খবর