মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার উদ্বোধন
মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার উদ্বোধন
২০১৭-১০-২৬ ১৩:১৩:১৪
প্রিন্টঅ-অ+


দীর্ঘ চার বছরের অপেক্ষার পর জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত হলো মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার প্রকল্পের।

স্বপ্নের এই উড়ালসড়ক উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে মগবাজার, মৌচাক ও মালিবাগ এলাকার বাসিন্দাদের দীর্ঘ দিনের ভোগান্তির অবসান হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

আজকের উদ্বোধনের মাধ্যমে ৮ হাজার ৪০০ মিটারের দীর্ঘ উড়ালসড়কের শতভাগের কাজ সম্পন্ন হলো। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা ৩৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই উড়ালসড়কের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন। উদ্বোধনের ঘোষণার পরপরই গণভবন প্রান্ত থেকে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

এ সময় মৌচাক প্রান্তে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন, ঢাকা উত্তরের ভারপ্রাপ্ত মেয়র উসমান গণি ও সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরীসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন স্তরের নেতারা।

এর আগে উদ্বোধন উপলক্ষে গতকাল থেকেই রঙিন সাজে মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার। নানা রংয়ের পতাকা ছাড়াও দৃষ্টিনন্দন কাপড়ে সাজানো হয়েছে ফ্লাইওভারটি। পুরো ফ্লাইওভার বিভিন্ন রংয়ের লাইটিং করা হয়।

২০১৩ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ করার লক্ষ্য নিয়ে শুরু হয়েছিল মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজ, তখন এর ব্যয় ধরা হয়েছিল ৭৭২ কোটি ৭০ লাখ টাকা। এর পর কয়েক ধাপে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ব্যয় বেড়ে হয় ১ হাজার ২১৯ কোটি টাকা। প্রতি মিটারে উড়ালসড়ক নির্মাণে ব্যয় হয়েছে প্রায় ১৩ লাখ টাকা।

তিন ভাগে হয়েছে ফ্লাইওভারটির নির্মাণ কাজ। একটি অংশে রয়েছে সাতরাস্তা থেকে মগবাজার হয়ে হলি ফ্যামিলি পর্যন্ত, আরেকটি অংশ শান্তিনগর থেকে মালিবাগ হয়ে রাজারবাগ পর্যন্ত এবং শেষ অংশটি বাংলামোটর থেকে মগবাজার হয়ে মৌচাক পর্যন্ত।

২০১৬ সালের ৩০ মার্চ ফ্লাইওভারের হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল থেকে সাতরাস্তা পর্যন্ত অংশটি যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। ওই বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর খুলে দেওয়া হয় ইস্কাটন-মৌচাক অংশ। তৃতীয় ধাপে গত ১৭ মে ফ্লাইওভারের এফডিসি মোড় থেকে সোনারগাঁও হোটেলের দিকের অংশটি যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়। আজ শান্তিনগর-মালিবাগ-রাজারবাগ অংশ এবং বাংলামোটর-মগবাজার-মৌচাকের অংশ যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত হলো।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর