ঈদে প্রয়োজনে বিকল্প ঘাট ব্যবহার করবে নৌ-কর্তৃপক্ষ
ঈদে প্রয়োজনে বিকল্প ঘাট ব্যবহার করবে নৌ-কর্তৃপক্ষ
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৭-০৮-১৭ ০২:১০:৩৮
প্রিন্টঅ-অ+


দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। বিষয়টি মাথায় রেখে আসন্ন ঈদ উপলক্ষে নৌপথে যাত্রী পারাপারে প্রয়োজনে বিকল্প ঘাট ব্যবহার এবং ফেরির সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনা করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।

এরই মধ্যে বিআইডব্লিউটিএ এর কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় সব কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের নিয়ে নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খানের উপস্থিতিতে ই-ম্যানেজমেন্ট সভা করেছে সংস্থাটি। সভায় স্থানীয় কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, যেকোনো পরিস্থিতিতে যাত্রীদের যাত্রা নিশ্চিতের। পাশাপাশি যেকোনো সময়ই বিকল্প ঘাট ব্যবহার ও পরিবহন ব্যবস্থা করারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকেলে ঈদযাত্রা সফলভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে সিদ্ধান্ত গ্রহণে ঢাকা নদীবন্দর টার্মিনাল ভবনে একটি সমন্বয় সভা করবে নৌপথের যাতায়াত ও পরিবহন তদারকির দায়িত্বে থাকা সংস্থাটি।

বিআইডব্লিউটিএ এর জনসংযোগ কর্মকর্তা মোবারক হোসেন মজুমদার বলেন, আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে ঢাকা নদীবন্দরে উন্নত যাত্রী সেবা, ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা ও নিরাপত্তার প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আগামীকাল ৩টায় ঢাকা নদীবন্দর টার্মিনাল ভবনের দ্বিতীয় তলায় এই সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর এম মোজাম্মেল হক।

সংস্থাটির ঈদযাত্রার প্রস্তুতি সম্পর্কে মোবারক হোসেন মজুমদার আরো বলেন, এ ধরনের পরিস্থিতিতে আমাদের সবচেয়ে রিস্কে থাকে কাঁঠালবাড়ি, পাটুরিয়া, দৌলতদিয়া ঘাট। ঈদের সময় বন্যা থাকলে বা এসব ঘাটে পানি বেড়ে গেলে কিংবা ঘাট ভেঙে গেলে বা অকেজো হয়ে গেলে, সংশ্লিষ্টদের ইতিমধ্যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সাথে সাথে বিকল্প ঘাট ব্যবহারের ব্যবস্থা করে দিতে।

তিনি বলেন, আমরা প্রতি বছরই এ ধরনের বিকল্প ব্যবস্থা রাখি। এবারো পূর্বপ্রস্তুতি থাকছে। পাশাপাশি যাতায়াতের সুবিধার্তে ফেরির সংখ্যাও বাড়ানো হবে।

এদিকে গত মঙ্গলবার বিআইডব্লিউটিএ ভবনে ‘আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে নৌপথে যাত্রীদের সুষ্ঠু ও নিরাপদ চলাচল নিশ্চিতকরণে কর্মপন্থা গ্রহণ’ শীর্ষক এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। ঈদের সময় নৌযাত্রা নিরাপদ রাখার লক্ষ্যে নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান সন্ধ্যার পর কোনো বালুবাহী জাহাজ নদীতে চলাচল করলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

মন্ত্রী বলেছেন, ‘ঈদের আগের পাঁচ দিন ও ঈদের পরের পাঁচ দিন কোনো ধরনের পণ্যবাহী জাহাজ চালানো যাবে না। আর স্বাভাবিক সময়ে রাতের বেলা যদি বালুবাহী জাহাজ নদীতে চলাচল করে তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ এ ছাড়া এবার যাত্রীদের কাছ থেকে বাড়তি ভাড়া নেওয়ার বিষয়টি প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন ধরে দেশের বিভিন্ন স্থানে বন্যা হচ্ছে। কিছু কিছু স্থানে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। মেঘনা ও তিস্তা অববাহিকার প্রধান নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় এ অববাহিকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এমনকি কিছু কিছু নদ-নদীর পানি বাড়ার প্রবণতাও অব্যাহত রয়েছে। নদ-নদীর বেশ কয়েকটি পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর