শরীরে ১০২ আইফোন নিয়ে ধরা!
শরীরে ১০২ আইফোন নিয়ে ধরা!
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৭-০৭-২০ ১৩:১৪:৩৫
প্রিন্টঅ-অ+


আইফোন চোরাচালানের ক্ষেত্রে শরীরে টেপ দিয়ে আটকে এবং কাপড়ের নিচে লুকিয়ে কাস্টমসের চোখ এড়ানোর চেষ্টা চোরাচালানকারীরা প্রায়ই করেন। যদিও এটি খুব সার্থক প্রক্রিয়া নয়।

সম্প্রতি হংকং থেকে চীনের শেনজেনে প্রবেশের সময় ১০২টি আইফোনসহ এক নারী গ্রেফতার হয়েছেন এই কঠিনতম উপায়ে আইফোন পাচারকালে। পরিহাসের বিষয় হলো, এই নারী যেখানে আইফোনগুলো নিয়ে যাচ্ছিলেন সেখানে অর্থাৎ শেনজেনেই ফক্সকোন থেকে অ্যাপলের আইফোন তৈরি হয়। তারপরও ধারণা করা হচ্ছে হংকংয়ে আইফোন দামে সস্তা, যে কারণে তিনি সেখান থেকে লুকিয়ে সেগুলো আনার চেষ্টা করছিলেন।

চীনা সংবাদমাধ্যম এক্সএমএনএন-এর তথ্যানুসারে, চোরাচালানকারী হিসেবে ওই নারী কাস্টমস কর্মকর্তাদের সন্দেহের নজরে পড়ার কারণ ছিল, গরম আবহাওয়া সত্ত্বেও তিনি পোশাকের ওপর কার্ডিগান পরে ছিলেন এবং তার হাত ও পায়ের তুলনায় শরীর অস্বাভাবিক মোটা দেখাচ্ছিল। এ কারণে কর্মকর্তারা তাকে চ্যালেঞ্জ করেন এবং সফল হন। তারা ওই নারীর দেহ তল্লাশি করে পোশাকের নিচে ও শরীরে বাঁধা অবস্থায় ১০২টি আইফোন পান। ফোনগুলো ওই নারীর ওজন ৪০ পাউন্ড বৃদ্ধি করেছিল।

তবে শরীরে সবচেয়ে বেশি আইফোন লুকিয়ে পাচারের ঘটনা এটি প্রথম নয়। ২০১৫ সালে হংকংয়ের এক ব্যক্তি ১৪৬টি আইফোন শরীরে লুকিয়ে চীনের শেনজেন কাস্টমস কর্মকর্তার হাতে ধরা পড়েছিলেন। সেটিই ছিল শরীরে সবচেয়ে বেশিসংখ্যক আইফোন লুকিয়ে পাচারের চেষ্টার রেকর্ড।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিদেশ এর অারো খবর