ছবি প্রকাশ করায় ক্ষুব্ধ হ্যাপি
ছবি প্রকাশ করায় ক্ষুব্ধ হ্যাপি
২০১৭-০৬-২২ ২২:৪৭:৩৭
প্রিন্টঅ-অ+


নাজনীন আক্তার হ্যাপির বদলে যাওয়া জীবন নিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে দেশীয় গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে।

ক্রিকেটার রুবেল হোসেনের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর আলোচনায় আসা সাবেক এই চিত্র নায়িকাকে নিয়ে প্রকাশিত ওইসব প্রতিবেদনে তার পুরনো ছবি প্রকাশ করায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক স্ট্যাটাসে প্রকাশিত প্রতিবেদন সম্পর্কে ইতিবাচক মনোভাবের পাশাপাশি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আলোচিত হ্যাপি।

কয়েকটি বার্তা সংস্থা ও গণমাধ্যমের নাম উল্লেখ করে তিনি বলেন, অনেক বড় বড় পত্রিকায় গতকাল "হ্যাপী থেকে আমাতুল্লাহ" বইটিকে কেন্দ্র করে আমাকে নিয়ে নিউজ করেছে। এর সুবিধা ও অসুবিধা দুইই রয়েছে।

হ্যাপি বলেন, বইটির খবর আন্তর্জাতিকভাবে ছড়াচ্ছে, বেশি মানুষ জানতে পারছে আমার ইসলামে উঠে আসার গল্প নিয়ে সাক্ষাতকারভিত্তিক বইটির মাধ্যমে। এবং অসুবিধা হয়েছে, বললাম এই কারণে যে তারা আমার পূর্বের ছবি প্রকাশ করেছে। এটা নিঃসন্দেহে আমার জন্য বিরক্তিকর।

ছবি ছাড়া সংবাদ প্রকাশ করা যায় কিনা এমন প্রশ্ন তুলে তিনি বলেন, এতই যখন দরকার তাহলে আমার বোরকা পরা ছবি ব্যবহার করলেই হতো!

হ্যাপির এই বদলে যাওয়া জীবন নিয়ে বুধবার ঢাকা থেকে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করে বার্তা সংস্থা এএফপি। হ্যাপি কেন ও কোন পরিস্থিতি বদলে গেলেন আর এখন তার জীবন কেমন কাটছে সে প্রসঙ্গ উঠে এসেছে প্রতিবেদনে।

এতে জানানো হয়, হ্যাপি এখন বিবাহিত। তার আপাদমস্তক এখন বোরকায় ঢাকা। এমনকি মোজা দিয়ে ঢেকে রাখার জন্য তার হাতের নখও দেখা যায় না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক থেকে সরিয়ে নিয়েছেন আগের সব ছবি। তাকে নিয়ে প্রকাশও করা হয়েছে বই। যাতে ক্রিকেটার রুবেলের প্রসঙ্গ অনেকটাই এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে।

এক সময়ের মডেল হ্যাপি ২০১৩ সালে কিছু আশা কিছু ভালোবাসা নামের একটি বাংলা সিনেমায় প্রথম অভিনয় করে খ্যাতি পান। তবে ২০১৪ সালের শেষ দিকে ক্রিকেটার রুবেল হোসেনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে বিতর্কের সৃষ্টি করেন। হ্যাপির অভিযোগ ছিল, ২৫ বছর বয়সী ওই ক্রিকেটার তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন।

এ ঘটনায় রুবেলের ক্যারিয়ারে প্রভাব ফেলে। তাকে জেল খাটতে হয়। বিশ্বকাপ শুরুর কয়েক দিন আগে খেলার সুযোগ দিতে তাকে জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়। পরে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের কোনো সাক্ষ্য-প্রমাণ পাননি আদালত। এ নিয়ে দীর্ঘ সমালোচনার এক পর্যায়ে হ্যাপি রুবেলের বিরুদ্ধে সব অভিযোগ তুলে নেন এবং তিনি রুবেলকে ক্ষমা করে দিয়েছেন বলে জানান।

এরপর নুতন ছবির কাজ শুরু করলেও হঠাৎ একদিন খবর বের হয়, তাবলিগ জামায়াতে যোগ দিয়েছেন হ্যাপি। নতুন জীবন শুরু করেছেন।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিনোদন এর অারো খবর