আ.লীগের সদস্য সংগ্রহে মূল টার্গেট নতুন ভোটার
আ.লীগের সদস্য সংগ্রহে মূল টার্গেট নতুন ভোটার
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৭-০৫-২২ ২৩:২৬:৩০
প্রিন্টঅ-অ+


আওয়ামী লীগের সদস্য সংগ্রহ অভিযানে নতুন ভোটারদেরকে মূল টার্গেট করার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের কার্যালয়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘একটি বিষয় আমি খোলাখুলিভাবেই বলতে চাই। আমাদের সদস্য সংগ্রহ অভিযানে মূল ফোকাস হবে বাংলাদেশের ফাস্ট টাইম ভোটারগণ। ১৮ বছর হয়ে গেছে- এমন তরুণদের সদস্য করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘এখনই উপযুক্ত সময়। কারণ, তারা যদি একবার সদস্য হয়ে যান তাহলে তাদের মনের মধ্যে একটা তাগিদ সৃষ্টি হবে। একটা আনুগত্য জন্ম নেবে। সদস্য করার কাজটি দ্রুত শুরু করতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘৩০ মে অথবা ৩১ মে’র মধ্যে কপিটা জমা দিন। তারপর এখানে বসে একটা তারিখ দিয়ে নবায়ন শুরু করুন। আপনাদের নবায়ন হওয়ার পর নতুন সদস্য সংগ্রহ শুরু করুন। সেখানে ফোকাস হবে ফাস্ট টাইম ভোটার। এদেরকে যত পারেন কাছে টানবেন। এরপর হচ্ছে নারী। কারণ, দেশের অর্ধেক ভোটার হচ্ছে নারী। এদের মন জয় করতে হবে। নারীদের মধ্যেও সদস্য সংগ্রহ করতে হবে। এই কাজগুলোর কথা আমি আগে-ভাগেই বলে গেলাম। আপনারা এই কাজগুলো করবেন। এখন থেকেই টাইমফ্রেম ঠিক করুন।’

প্রসঙ্গত, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর ও দক্ষিণের পূর্ণাঙ্গ কমিটি থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিয়নের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হলেও এখন পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়নি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এই কথাগুলো বলার জন্যই মূলত এখানে এসেছি। অফিস উদ্বোধন করেছি- এটা আনুষ্ঠানিকতা মাত্র। কালারফুল অফিস উদ্বোধন করলেই সংগঠন কালারফুল হবে না। ডিজিটাল কিছু উদ্বোধন করলেই আমাদের সব কিছু ডিজিটাল হয়ে যাবে না। মন-মানসিকতা না বদলালে ডিজিটাল কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা যাবে না। কাজেই আমাদের নিজেদেরও পরিবর্তন করতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা একজনকে নিয়ে ভাবি। আমাদের একজন শেখ হাসিনা আছেন। আর এখন আমাদের সব কর্মকা-ের কেন্দ্রবিন্দু হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী ও দলের সভাপতি শেখ হাসিনা। এখন দেশে তার জনপ্রিয়তা বিভিন্ন সমীক্ষায় ৭০ থেকে ৭২ শতাংশ।

নির্বাচনে বিজয়ী হতে হলে আমাদের জনপ্রিয়তাও বাড়াতে হবে। নেত্রী প্রেসিডেন্সিয়াল নির্বাচন করছেন না। প্রেসিডেন্সিয়াল নির্বাচন করলে আমাদের কোন চিন্তাই ছিল না। তার জনপ্রিয়তার ধারে কাছে কেউ নেই। ৭৫’ সালের পর থেকে এ পর্যন্ত শেখ হাসিনার মতো জনপ্রিয় নেতা তৈরি হয়নি। কিন্তু ইলেকশন তো ওয়েস্ট মিনিস্টার সিস্টেমে হবে। মহানগর নেতাকর্মীদের নির্বাচনের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে পাড়া-মহল্লার শিক্ষিত গুণীজন, স্কুল-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সদস্য করার আহ্বান জানান।

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণ ও উত্তরের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ এবং সাদেক খান।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

রাজনীতি এর অারো খবর