মহাকাশে সাউথ এশিয়ান স্যাটেলাইট
মহাকাশে সাউথ এশিয়ান স্যাটেলাইট
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৭-০৫-০৬ ০২:২০:০৩
প্রিন্টঅ-অ+


বহুল আলোচিত সাউথ এশিয়ান স্যাটেলাইট ‘জিএসএটি-০৯’ সফলভাবে উৎক্ষেপণ করেছে ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অর্গানাইজেশন (ইসরো)।

শুক্রবার বিকেলে ভারতের শ্রীহরিকোটার সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টার থেকে এ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করা হয়।

ইসরোর তৈরি এই স্যাটেলাইটে ১২টি অংশ রয়েছে। যার একটি অংশ নির্দিষ্ট থাকবে বাংলাদেশের জন্য। উপগ্রহের মতো মহাকাশে বিচরণ করে এই স্যাটেলাইট বাংলাদেশকেও পৃথিবীর নানা তথ্য দেবে।

স্যাটেলাইটটির ওজন ২ হাজার ২৩০ কেজি। এটি নির্মাণে সময় লেগেছে তিন বছর। এই কৃত্রিম উপগ্রহ উৎক্ষেপণের ৪০ কোটি ডলারের পুরো ব্যয় বহন করছে ভারত।

স্যাটেলাইট উদ্বোধন উপলক্ষে ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেন দক্ষিণ এশিয়ার সাত দেশের শীর্ষ নেতারা। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পরে সার্ক স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের ঘোষণা দেন। তিনি সার্কের অন্য সাতটি দেশকে বিনা অর্থে এর সুবিধা নেওয়ার জন্য আহ্বান জানান। পাকিস্তান ছাড়া অন্য সব দেশ এতে সাড়া দেয়।

বাংলাদেশ নিজস্ব কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট বাধাগ্রস্ত হবে না নিশ্চিত হওয়ার পর সাউথ এশিয়ান স্যাটেলাইটে যুক্ত হওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট আগামী ডিসেম্বরে উৎক্ষেপণ করা হবে।

সাউথ এশিয়া স্যাটেলাইটের ১২টি ট্রান্সপন্ডারের মধ্যে একটি বিনামূল্য পাচ্ছে বাংলাদেশ। এটি যেভাবে ইচ্ছা ব্যবহার করা যাবে। টেলি মেডিসিন, টেলি এডুকেশন, আন্তঃসরকার নেটওয়ার্ক, দুর্যোগ পরিস্থিতিতে জরুরি যোগাযোগ, টেলিভিশন ব্রডকাস্ট, ডিটিএইচ টেলিভিশন সেবায় সুবিধা পাওয়া যাবে এই স্যাটেলাইট থেকে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি এর অারো খবর