এইডসের চিকিৎসায় অভূতপূর্ব অগ্রগতি
এইডসের চিকিৎসায় অভূতপূর্ব অগ্রগতি
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৭-০৫-০৬ ০১:৪৮:০৩
প্রিন্টঅ-অ+


বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি এইচআইভি ভাইরাস ধ্বংস করতে অনেক দূর এগিয়েছেন।

মোলিকুলার থেরাপিতে প্রকাশিত জার্নালে বলা হয়, বিজ্ঞানীরা ক্রিস্পার প্রযুক্তি ব্যবহার করে ইঁদুরের দেহ থেকে এইচআইভি-১ ভাইরাস ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছেন। ক্রিস্পার অ্যাসোসিয়েটেড প্রোটিন ৯ প্রযুক্তি দিয়ে এইডসের জন্যে দায়ী ভাইরাসের বংশ বৃদ্ধি ঠেকাতে সক্ষম হয়েছেন।

ক্লাস্টারড রেগুলারলি ইন্টারস্পেসড শর্ট পালিনড্রমিক রিপিটস যা সংক্ষেপে সিআরআইএসপিআর বা ক্রিস্পার নামেই পরিচিত। এটি একটি ডিএনএ সংশোধন প্রক্রিয়া। ডিএনএ বা জিনের কোডিং করে এইচআইভি ভাইরাসের নতুন করে সৃষ্টি হওয়া এবং পুরোনো থেকে যাওয়া ভাইরাস ধ্বংস করে।

এটি এতোদিন একটি ধারণাতেই সীমাবদ্ধ ছিল। বিজ্ঞানীরা সেই ধারণা নিয়ে কাজ করে সাফল্য পেয়েছেন। একে মরণব্যাধি এইডসের চিকিৎসায় বিরাট অগ্রগতি বলে ধরা হচ্ছে।

একবার যদি ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানো যায় এবং ভাইরাস পুরোপুরি ধ্বংস করা যায়, তবে জীবনঘাতী এই অসুখ থেকে মানুষের মুক্তি মেলা সম্ভব। অনেক মানুষ জন্মগত কারণেই এ মরণব্যাধিতে আক্রান্ত। কোনো ধরনের অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন ছাড়াও এ রোগে যে কাউকে পেয়ে বসতে পারে। একই সূচ কিংবা ইঞ্জেকশন ব্যবহারের দ্বারাও এটি ছড়িয়ে থাকে। তাছাড়া বাবা-মা’র এ ব্যাধি থাকলে তা সন্তানেরও হতে পারে।

তাই শুধু নিজের ভুলের কারণেই যে এ রোগটি হয় তা না, অনেক সময় দুর্ভাগ্যবশতও এটা হতে পারে কিংবা জন্মলগ্ন ভাবেও হতে পারে। আফ্রিকাতে এ রোগের প্রকোপ সবচেয়ে বেশি।

যদিও বিজ্ঞানীরা ক্রিস্পার প্রযুক্তিতে ইঁদুরের দেহ কোষ থেকে এইচআইভি-১ এর ভাইরাসের নতুন কপি হওয়া ঠেকাতে এবং তা চিরতরে দূর করতে সক্ষম হয়েছে তবে এখনই এই প্রযুক্তি মানুষের ওপর প্রয়োগ করার উপযোগী হয়নি।

বিজ্ঞানীরা আরো কিছু পরীক্ষার পর এবং মানুষের ডিএনএ’র সঙ্গে প্রায় একই কোডিং এমন পশুর ওপর প্রয়োগ করে তারপর মানুষের ওপর এর সক্ষমতা যাচাই করার আশা প্রকাশ করেন।

এই জার্নালের সহলেখক ড. খলিলি বলেন, আমরা এটা নিয়ে আরো কাজ করতে চাই। এমনকি এইআইভি-১ ভাইরাসের টি সেল আক্রান্ত জায়গা এবং মস্তিষ্কের সংক্রমণ নিয়েও কাজ করতে চাই। তবে আমাদের চূড়ান্ত লক্ষ্য হচ্ছে, এই প্রযুক্তিতে ক্লিনিক্যালি মানুষকে সেবা দেয়া।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বাস্থ্য এর অারো খবর