‘শেখ হাসিনা কখনো দেশ বিক্রি করবে না, রক্ষা করবে’
‘শেখ হাসিনা কখনো দেশ বিক্রি করবে না, রক্ষা করবে’
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৭-০৪-১২ ০০:৪৩:২০
প্রিন্টঅ-অ+


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘একটা কথা সবসময় মনে রাখবেন, শেখ হাসিনা কখনো দেশ বিক্রি করবে না, দেশকে রক্ষা করবে।’

মঙ্গলবার বিকেলে গণভবনে চারদিনের ভারত সফর নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে শেখ হাসিনা ভারতের কাছে দেশকে বিক্রি করে দিয়েছেন, বিএনপিসহ বিভিন্ন মহলের এমন সমালোচনার প্রসঙ্গ তুলে একটি প্রশ্ন করা হলে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, আমি ভারতের কাছে কোনও দেনা-পাওনার জন্য যাইনি, স্রেফ বন্ধুত্ব চাইতে গিয়েছিলাম, বন্ধুত্ব পেয়েছি। দেশের মানুষের জন্য সম্মান বয়ে আনতে পেরেছি এটাই এই সফরের সবচেয়ে বড় অর্জন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘শেখ হাসিনা দেশ বেঁচে না। স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব বেঁচে না। যারা উড়ে এসে জুড়ে বসে তারাই বেঁচে। তারা ঘ্যানর ঘ্যানর করতেই থাকবে, তাতে আমাদের কী আসে যায়। আমরা দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দেওয়ার মতো কিছু করবো না, করলে তারাই করবে।’

ভারতের সঙ্গে সামরিক সহায়তা চুক্তি নিয়েই সমালোচনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ভারত যে সহায়তা দিচ্ছে তা মাত্র ১% সুদে ২০ বছরে পরিশোধযোগ্য নমনীয় ঋণ। এই অর্থ দিয়ে কি করা হবে সে স্বাধীনতা পুরোপুরি বাংলাদেশের। যেকোনও দেশ থেকে সামরিক অস্ত্র সরঞ্জাম বাংলাদেশ কিনতে পারবে। এছাড়া এই চুক্তিরা আওতায় দুই দেশের মধ্যে জ্ঞান ও দক্ষতার বিনিময় হবে।

ভারত আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধে সহায়তা করেছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ভারতের সেনাবাহিনীর কাছ থেকে আমাদের সেনাবাহিনীর শেখার ও প্রশিক্ষণের অনেক কিছু রয়েছে। এই সহায়তা কাঠামোগত। এতে থাকবে শিক্ষা সফর, প্রশিক্ষক বিনিময়, চিকিৎসা সফর বিনিময়, টহল অনুশীলণ ইত্যাদি।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় তার নিজেরই দায়িত্বে এমন কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, যতক্ষণ আমি বেঁচে আছি, ততক্ষণ বাংলাদেশের স্বার্থ বিরোধী কিছু হবে না, এটা মনে রাখবেন। সামরিক সহায়তা চুক্তির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এমন চুক্তি এখন বিশ্বের অন্তত ১৩টি দেশের সঙ্গে রয়েছে বাংলাদেশের। আর ছয়টি দেশের সঙ্গে প্রতিরক্ষা চুক্তিও রয়েছে।

আরেক প্রশ্নের উত্তরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যেসব চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়েছে, সেগুলো নিয়ে লুকোছাপার কিছু নেই। আমি যতক্ষণ আছি, বাংলাদেশের স্বার্থবিরোধী কিছু হবে না।’

প্রধানমন্ত্রী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘আমাদের যারা মুক্তিযুদ্ধে বিরোধিতা করল, তাদের সঙ্গে চুক্তি করলেও প্রশ্ন ওঠে না। কিন্তু যারা সহযোগিতা করল, তাদের সঙ্গে এমইউ করলে কেন প্রশ্ন ওঠে? এটা আমি ভেবে পাই না।’

প্রসঙ্গত, চার দিনের ভারত সফর শেষে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় দেশে ফেরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর