লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে বরিশালের জয়
লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে বরিশালের জয়
সংগীতা ঘোষ
২০১৫-১২-১০ ২১:৪৩:০৭
প্রিন্টঅ-অ+


বিপিএলের লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে (৩০তম) নাসির হোসেনের ঢাকা ডায়নামাইটস মুখোমুখি হয় মাহামুদুল্লাহ রিয়াদের বরিশাল বুলসের বিপক্ষে। জয়ের জন্য মাত্র ১৩৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়েও শেষ মুহূর্তে ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে নাটকীয় জয় তুলে নিয়েছে বরিশাল বুলস। যদিও এর আগে টুর্নামেন্টে শেষ চারে জায়গা করে নিয়েছে দলটি।

বরিশালের সুপার ফোর নিশ্চিত হয়েছে অনেক আগেই। আর দিনের খেলায় হেরে সিলেট বিদায় নিতেই ঢাকার শেষ চারও নিশ্চিত। বরিশালের সামনে এ ম্যাচে জিতে রানরেটে এগিয়ে থেকে রংপুরকে ছাড়িয়ে যাওয়ার একটা সুযোগ ছিল। কিন্তু সেটাকে সুযোগ বলাটা কেমন যেন দেখায়! কারণ ঢাকার ১৩৬ রান যদি বরিশাল তিন ওভারে(!) ছাড়িয়ে যেতে পারত তবেই শুধু সম্ভব হতো রানরেটে রংপুরকে পেছনে ফেলা।

দৃশ্যত অসম্ভব সেই টার্গেটের পেছনে তাই ছোটেনি বরিশাল। সহজ হিসাবেই ম্যাচ জয়ের পথে নামে। সেই লক্ষ্যে পৌঁছতে শুরু থেকেই মুখ থুবড়ে পড়ে তারা। ১৫ নম্বর ওভারে ৭৬ রানে ৭ উইকেট হারানোর পর এ ম্যাচে সবাই অপেক্ষায় ছিলেন ঢাকার জয় দেখার। কিন্তু সব হিসাব বদলে দিল রায়াদ এমরিটের ব্যাট। উইকেটে এসে দুর্দান্ত ব্যাটিং করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের এ ক্রিকেটার বুঝিয়ে দিলেন-প্রায় হারা অবস্থা থেকেও ম্যাচ জেতা যায়। ২৮ বলে ৬ চার ও ২ ছক্কায় এমরিটের হার না মানা ৫৪ রানের ইনিংস বরিশালকে এনে দিল ২ উইকেটের নাটকীয় জয়। শেষ ওভারে ম্যাচ জয়ের জন্য বরিশালের প্রয়োজন দাঁড়ায় ১০ রান। ঠিক আগের দিন এ টার্গেটেই শেষ ওভারে ম্যাচ বাঁচাতে পারেনি ঢাকা। একই ঘটনা ঘটল গত রাতেও। তবে এবার বোলার ফরহাদ রেজার জায়গায় ছিলেন মোহাম্মদ ইরফান। কিন্তু পাকিস্তানি পেসারও ঢাকাকে বাঁচাতে পারেননি। এমরিট শেষ ওভারে ২ বাউন্ডারি হাঁকিয়ে নাটকীয় ভঙ্গিতে বরিশালকে ম্যাচ জিতিয়ে দেন।

সেমিফাইনালের একাদশে এখন বিদেশি কোটায় এমরিটকে না রেখে বরিশালের উপায় যে নেই!
জিতে লাভ নেই। হারলেও ক্ষতি নেই-এই কৌতুককর সমীকরণের ম্যাচ নিয়ে আর কি কারও আগ্রহ থাকে? সত্যি বলতে কি, ঢাকা-বরিশালের ম্যাচে সেই আগ্রহ তেমন করে কারও ছিলও না। কিন্তু এমরিটের দুর্দান্ত ব্যাটিং এ ম্যাচের শেষাংশ দারুণ জমিয়ে দিল। বিরক্তি কেটে গেল। ম্যাচের শেষটা ঠিকই উপভোগ্য হল।
তবে ম্যাচ হেরেও এ ম্যাচে ঢাকার অধিনায়ক নাসির হোসেনের হাসিমুখই দেখা গেল।

কারণ আর কিছু নয়-এ ম্যাচের ফলটা যে মুখ্য ছিল না!
সংক্ষিপ্ত স্কোর
ঢাকা ডায়নামাইটস : ১৩৬/৬, ২০ ওভার (হাফিজ ২৫, ফরহাদ রেজা ১৯, ডেসকাট ২২, মোসাদ্দেক ৩০*; নিখিল দত্ত ৩/১৮, এমরিট ২/২৯)। বরিশাল বুলস : ১৩৭/১৯.৪ ওভার (মেহেদি ৩৭, এমরিট ৫৪*; মোশাররফ ৩/২৯, নাবিল ২/২৩)। ফল : বরিশাল ২ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা : রায়াদ এমরিট।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

ক্রীড়া এর অারো খবর