মাশরাফির শেষের শুরুতে হারল বাংলাদেশ
মাশরাফির শেষের শুরুতে হারল বাংলাদেশ
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৭-০৪-০৫ ০০:৫১:০৭
প্রিন্টঅ-অ+


টস করতে এসে দলপতি দিলেন বিদায়ের ঘোষণা। পুরো দলের মন খারাপ! তবুও একসঙ্গে জ্বলে উঠার প্রত্যয়। আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ একসঙ্গে জ্বলে উঠতে পারল না। শ্রীলঙ্কা প্রথম টি-টোয়েন্টি জিতল ৬ উইকেটে। ব্যাটিং ও বোলিংয়ে ছন্নছড়া বাংলাদেশ ১-০ ব্যবধানে সিরিজে পিছিয়ে।

টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে করল ৬ উইকেটে ১৫৫ রান। জবাবে শ্রীলঙ্কা ৬ উইকেট ও ৭ বল হাতে রেখে জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়ে।

টস করতে এসে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা টি-টোয়েন্টি থেকে অবসরের ঘোষণা দেন। বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতই মাশরাফির অবসরের ঘোষণায় হতবাক পুরো ক্রিকেটাঙ্গন। টস করে ফিরে এসে মাশরাফি দলের সতীর্থ ও কোচিং স্টাফদের পক্ষ থেকে পেলেন বিদায়ী অভ্যর্থনা। মাশরাফির অবসরের সিদ্ধান্ত মানতে পারেনি কলম্বোও। মন খারাপ করে কলম্বোর আকাশ ভেঙে নামল বৃষ্টি!

৪৫ মিনিট পর ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। আর প্রেমাদাসায় নিজের প্রত্যাবর্তন স্মরণীয় করে রাখলেন লাসিথ মালিঙ্গা। দ্বিতীয় বলে কিছু বুঝে উঠার আগেই বোল্ড তামিম ইকবাল। ফুলটস বল ইয়র্কার বানিয়ে বিপদে তামিম। ওভারের শেষ বলে ফিরতে পারতেন সৌম্য। কিন্তু ফিরতি ক্যাচ মিস করলেন মালিঙ্গা। ওই ওভারের পর ওভারপ্রতি দশের উপর রান তুলে স্বরূপে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশকে রানে ফেরান সাব্বির রহমান ও সৌম্য সরকার। দুজনের আগ্রাসী ব্যাটিং লণ্ডভন্ড শ্রীলঙ্কা। ষষ্ঠ ওভারে এ জুটি ভাঙেন সেকুগে প্রসন্নর সরাসরি থ্রোতে। ১৪ বলে ২ বাউন্ডারিতে ১৬ রান করে বিদায় নেন সাব্বির। একই ওভারে সৌম্য নিজের উইকেট বিসর্জন দেন। সঞ্জয়ের বলে এগিয়ে এসে মারতে গিয়ে লং অনে ক্যাচ দেন। ২০ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় ২৯ রান করেন সৌম্য। এরপর বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। ৫৭ থেকে ৮২ রান পর্যন্ত যেতেই বাংলাদেশ হারায় মুশফিকুর রহিম (৮) ও সাকিব আল হাসানের উইকেট। গুনারত্নের বলে উইকেটের পিছনে খেলতে গিয়ে বোল্ড হন মুশফিক। সাকিব সেকুগে প্রসন্নর টার্নের বিপরীতে খেলতে গিয়ে কভারে ক্যাচ দেন।

এরপর বাংলাদেশের রানের চাকা সচল রাখেন টি-টোয়েন্টির ব্যাটিং ভরসা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। ষষ্ঠ উইকেটে ৪২ বলে ৫৭ রানের জুটি বাংলাদেশকে এনে দেয় লড়াকু পুঁজি। সিঙ্গেলগুলোকে ডাবলসে পরিণত করে এবং গুটি কয়েক বাউন্ডারিতে মোসাদ্দেক ও মাহমুদউল্লাহ দারুণ প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। ১৯তম ওভারে এ জুটি ভাঙেন মালিঙ্গা। দারুণ এক ইয়র্কারে ইনসাইড এজ হয়ে বোল্ড হন ৩১ রান করা মাহমুদউল্লাহ। এরপর মাশরাফির ৯ ও মোসাদ্দেকের অপরাজিত ৩৪ রানের সুবাদে ১৫৫ রানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ।

বল হাতে ২ উইকেট নিলেও মালিঙ্গা ৩৮ রান ব্যয় করেন।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রীলঙ্কার আগ্রাসনে কুপোকাত বাংলাদেশ। ৭ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কার রান ৬৬! সপ্তম ওভারের পঞ্চম বলে মাশরাফির হাত ধরে আসে সাফল্য। অধিনায়ক আউট করেন প্রতিপক্ষ অধিনায়ক থারাঙ্গাকে। অফস্ট্যাম্পের বাইরের বল কাট করতে গিয়ে শর্ট থার্ডম্যান অঞ্চলে ক্যাচ দেন থারাঙ্গা।

এর আগে বেহিসেবী বোলিং করেন তাসকিন ও সাকিব! সাকিব প্রথম ওভারে দেন ১৬ রান, তাসকিন ১৪! মাশরাফি ব্রেক থ্রু এনে দেওয়ার পর লঙ্কানদের রানের চাকা থেমে থাকেনি। ৫৬তম টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হওয়া সাইফউদ্দিন প্রথম ওভারে দেন ১০ রান। পরের ওভারে মাশরাফি আবারও লঙ্কা শিবিরে আঘাত করেন। ফিরতি ক্যাচ দিয়ে আউট দিলশান মুনাবেরা (৮)।

থেমে থাকেননি কুশাল পেরেরা। মোসাদ্দেক হোসেনের শর্ট বল বাউন্ডারিতে পাঠিয়ে ৩১ বলে তুলে নেন ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ টি-টোয়েন্টি হাফ-সেঞ্চুরি। হাফ-সেঞ্চুরির পর ১৪ রান যোগ করে সাইফউদ্দিনের বলে শর্ট থার্ড ম্যানে ক্যাচ দিয়েছিলেন পেরেরা। কিন্তু তাসকিন সহজ ক্যাচ মিস করে বাংলাদেশকে জয়ের সুযোগ থেকে হাতছাড়া করেন! তখনও জয়ের থেকে ৩৭ রান দূরে ছিল শ্রীলঙ্কা।

তাসকিন ১৯তম ওভারে নিজের তৃতীয় স্পেলে ফিরে এসে আউট করেন কুশল পেরেরাকে। ৫৩ বলে ৯ চার ও ১ ছক্কায় ৭৭ রান করে আউট হন তাসকিনের শর্ট বলে। জয়ের থেকে ৯ রান দূর থেকে আউট হলেও জয় পেতে কোনো সমস্যা হয়নি। সেকুগে প্রসন্ন তৃতীয় বলে মিড অফ দিয়ে বিশাল ছক্কা হাঁকিয়ে ব্যবধান ৩ এ নিয়ে আসেন। পরের বলে সিঙ্গেলে নিয়ে প্রান্ত বদল করেন সেকুগে। পঞ্চম বলে বাউন্ডারি মেরে ৭ বল আগে জয় নিশ্চিত করেছেন থিসারা পেরেরা।

বিদায়ী সিরিজের প্রথম ম্যাচে জয় না পেলেও বোলিংয়ে ধার দেখিয়েছেন চিরচেনা মাশরাফি। সর্বোচ্চ ২টি উইকেট পকেটে পুরেছেন মাশরাফি। দানবীয় ইনিংস খেলে কুশল পেরেরা ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

ক্রীড়া এর অারো খবর