ট্রাম্পের কাছে "টুইটার কন্যা"-র খোলা চিঠি
ট্রাম্পের কাছে "টুইটার কন্যা"-র খোলা চিঠি
২০১৭-০১-২৬ ১১:২৭:২৬
প্রিন্টঅ-অ+


সিরিয়ার আলেপ্পোয় মা-বাবার সঙ্গে যখন আটকা পড়া অবস্থায় দিন কাটছিল, তখনই বিশ্ববাসীর কাছে পরিচিত হয়ে উঠেছিল বানা আল-আবেদ। মায়ের সহায়তায় টুইটারে নিয়মিত ধ্বংসস্তূপের ছবি পোস্ট করে ‘আলেপ্পোর টুইটার কন্যা’ হিসেবে খ্যাতি পায় সে। ডিসেম্বরে যুদ্ধবিরতির সুযোগে পূর্ব আলেপ্পো থেকে বেরিয়ে তুরস্কে আশ্রয় নেয় বানা আবেদ ও তার পরিবার। বানা সম্প্রতি সপরিবারে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছে। তার পরিবার সিরীয় বিদ্রোহীদের সমর্থক। কিন্তু সিরিয়া নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অবস্থান এখনো স্পষ্ট নয়।
তাই সম্প্রতি ট্রাম্পের কাছে খোলা চিঠি লিখেছে বানা। তার মা ফাতিমা চিঠির একটি অনুলিপি বিবিসিকে পাঠিয়েছেন। এই চিঠি বানা লিখেছিল ট্রাম্পের অভিষেকের আগে। চিঠিতে সে লিখছে...
প্রিয় ডোনাল্ড ট্রাম্প,
আমার নাম বানা আল-আবেদ। সিরিয়ার আলেপ্পো শহরের সাত বছরের বালিকা। গত ডিসেম্বরে অবরুদ্ধ পূর্ব আলেপ্পো থেকে পালিয়ে আসার আগে পর্যন্ত আমি সিরিয়াতেই থাকতাম। আমি ওই সব শিশুদেরই মধ্যে পড়ি, যারা সিরিয়া যুদ্ধের ভুক্তভোগী। কিন্তু এখন তুরস্কের নতুন এক বাড়িতে আমি শান্তিতে আছি।এরদোয়ানের সঙ্গে বানা আল-আবেদ
আলেপ্পোতে আমি যে স্কুলে পড়তাম সেটা বোমা হামলায় ধ্বংস হয়ে গেছে। আমার কিছু বন্ধু সেখানে মারা গেছে। তাদের জন্য আমার খুব কষ্ট হয়। তারা যদি আমার সঙ্গে এখানে থাকত, আমরা একসঙ্গে খেলতে পারতাম। আলেপ্পোয় খেলতে পারতাম না আমি, কারণ সেটা ছিল মৃত্যুপুরী।
তুরস্কে এখন আমি বাইরে যেতে পারি এবং আনন্দ করতে পারি। চাইলে স্কুলেও যেতে পারি। এখনো অবশ্য যাওয়া শুরু করিনি। এ কারণেই সবার জন্য শান্তি খুব গুরুত্বপূর্ণ। আপনার জন্যও বটে।
কিন্তু সিরিয়ার লাখো শিশুর অবস্থা এখনো আমার মতো নয়। তারা শান্তিতে নেই। সিরিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে যুদ্ধের ভুক্তভোগী। তারা ভোগান্তিতে আছে বয়স্ক লোকদের কারণে।
আমি জানি, আপনি মার্কিন প্রেসিডেন্ট হবেন। আপনি কী অনুগ্রহ করে সিরিয়ার জনগণ ও শিশুদের রক্ষা করবেন? সিরিয়ার শিশুদের জন্য আপনাকে কিছু করতেই হবে, কারণ তারা আপনার সন্তানদের মতোই। তারাও আপনার মতো শান্তিতে থাকার অধিকার রাখে। আপনি যদি প্রতিশ্রুতি দেন সিরিয়ার শিশুদের জন্য কিছু করবেন, তাহলে ইতিমধ্যে আমি আপনার একজন নতুন বন্ধু হয়ে গেছি।
আপনি সিরিয়ার শিশুদের জন্য কী করবেন, তা দেখার অপেক্ষায় রইলাম।’

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিদেশ এর অারো খবর