তুরস্কে আত্মঘাতী বোমা হামলা ও গুলি, নিহত ৪
তুরস্কে আত্মঘাতী বোমা হামলা ও গুলি, নিহত ৪
স্টাফ রিপোর্টার
২০১৭-০১-০৫ ২২:২৪:০৮
প্রিন্টঅ-অ+


এক সপ্তাহ না পেরুতেই আবারও রক্তাক্ত হলো তুরস্ক। আজ বৃহস্পতিবার দেশটির ইজমির শহরের আদালত চত্বরের কাছে আত্মঘাতী গাড়ি বোমা হামলা ও গুলিতে চারজন নিহত হয়েছেন।
বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই হামলার ঘটনায় দুজন হামলাকারী, পুলিশের একজন সদস্য ও একজন আদালত কর্মী নিহত হন। আহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন। কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। গণমাধ্যমে প্রচারিত হামলার ছবিতে দেখা গেছে, দুটি গাড়ি জ্বলছে, পাশে অস্ত্র বহনকারী এক ব্যক্তির মরদেহও দেখা গেছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, তৃতীয় আরেকজন হামলাকারী ছিলেন। তাঁর খোঁজ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় এখনো কোনো পক্ষ দায় স্বীকার না করলেও প্রাথমিকভাবে কুর্দি বিদ্রোহীদের দায়ী করছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।
ইজমিরের গভর্নর এরল আইয়িলদিজ বলেন, প্রথমে ইজমির আদালত চত্বরে একটি গাড়ি এসে দাঁড়ায়। পুলিশের সঙ্গে ওই গাড়িতে থাকা ব্যক্তির গুলি বিনিময় হওয়ার পরপরই গাড়িবোমাটি বিস্ফোরিত হয়। হামলাকারীদের হাতে কালাশনিকভ রাইফেল ও গ্রেনেড ছিল। এরপর দ্বিতীয় গাড়িটি রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে বিস্ফোরিত হয়।
তবে দেশটির উপপ্রধানমন্ত্রী ভেইসি কায়নাক বলেন, বন্দুকধারী ওই ব্যক্তি উইঘুর সম্প্রদায়ের কেউ হতে পারেন।
বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজ সকালেই উইঘুর সম্প্রদায়ের বেশ কিছু সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ কারণেই তারা এ হামলার ঘটনা ঘটাতে পারে।
সম্প্রতি তুরস্কের বড় কয়েকটি শহর তথাকথিত জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) ও কুর্দি বিদ্রোহীদের হামলার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছে। গত বছরের আগস্টে তুরস্কের সীমান্ত থেকে আইএস জঙ্গি ও কুর্দিদের হঠাতে সিরিয়ায় সামরিক অভিযান শুরু করেছে তুরস্ক।

গাড়িবোমা বিস্ফোরণের পর আদালত চত্বরে আতঙ্কে কাঁদছেন এক নারী। ছবি: এএফপিগত ৩১ ডিসেম্বর ইস্তাম্বুলের রেইনা নাইট ক্লাবে বর্ষবরণের রাতে গুলি চালিয়ে ৩৯ জনকে হত্যা করেছে এক বন্দুকধারী। ইরাক ও সিরিয়াভিত্তিক ইসলামিক স্টেট ইতিমধ্যেই অভিজাত রেইনা ক্লাবে হামলার দায় স্বীকার করেছে। ওই ঘটনায় মঙ্গলবার পর্যন্ত ১২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এর আগে গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর আঙ্কারায় নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত আন্দ্রেই কারলভ একটি চিত্র প্রদর্শনীতে গিয়ে ‘অফ ডিউটি’ পুলিশ সদস্যের গুলিতে নিহত হন। ১৭ ডিসেম্বর কায়সেরি শহরে একটি সামরিক বাসে আত্মঘাতী হামলায় ১৪ সেনা নিহত হন। কুর্দিস্তান ফ্রিডম ফ্যালকনস (টিএকে) এর দায় স্বীকার করে। ১০ ডিসেম্বর ইস্তাম্বুলে জোড়া বোমা হামলায় ৪৪ জন নিহত ও ১৬৬ জন আহত হন। তাঁদের বেশির ভাগই পুলিশ সদস্য।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিদেশ এর অারো খবর