উৎসাহ-উদ্দীপনায় কেন্দ্রে ভোটাররা
উৎসাহ-উদ্দীপনায় কেন্দ্রে ভোটাররা
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৬-১২-২২ ১৪:৪৪:৫৫
প্রিন্টঅ-অ+


নারায়ণগঞ্জ এর আগে যতগুলো নির্বাচন হয়েছে সবকটিতেই ছিল উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। এখানকার ভোটরার দেখেছেন কেন্দ্র দখল, জালভোট, সংঘাত-সংঘর্ষ। ভোটারের চোখে-মুখে ছিল আতঙ্ক। কিন্তু এবারের চিত্র পুরোপুরি ভিন্ন। নেই কোনো শঙ্কা। সকাল থেকে চলেছে ভোট উৎসব। শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে চলছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন। উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে ভোট দিচ্ছেন ভোটাররা।

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি বাড়ছে। বিশেষ করে নারী ভোটারদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। নির্বাচনকে ঘিরে নারায়ণগঞ্জে নেয়া নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন ভোটাররা। তারা জানান, সকাল থেকেই সুন্দর পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে। পর্যাপ্ত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য উপস্থিতি আছে। সব মিলিয়ে নির্বাচনী পরিবেশে তারা সন্তুষ্ট।

এদিকে, সকালে ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, খুব সুন্দর পরিবেশে নারায়ণগঞ্জে ভোটগ্রহণ চলছে। আজকের দিনটি নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য একটি বিরল দিন। এতো সুন্দর পরিবেশে নির্বাচন নারায়ণগঞ্জবাসী এর আগে দেখেনি।

অন্যদিকে, ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তায় সন্তুোষ প্রকাশ করেছেন বিএনপির প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন খান। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ কোন খারাপ খবর পাইনি। ফলাফল ঘোষণা পর্যন্ত অপেক্ষা করব। নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হলে জনগণ যে রায় দেবে তা মেনে নেব।

এদিকে. শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ চলায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, বুধবার রাত পর্যন্ত নানা ধরনের অনিশ্চয়তা ও শঙ্কা থাকলেও এখন পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের পরিবেশ শান্তিপূর্ণ ও সন্তোষজনক আছে।

একইভাবে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ। তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জে সকাল থেকেই উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান তালুকদার বলেন, ভোটের পরিবেশ সুন্দর আছে। শেষ পর্যন্ত এই পরিবেশ বজায় থাকবে বলে তার আশা।

তিনি বলেন, কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর আমরা পাইনি। নির্বাচন সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে হচ্ছে। আমি নিজেও ছয়টি কেন্দ্র ঘুরে দেখেছি। প্রতিটি কেন্দ্রের পরিবেশই সুন্দর ও সুষ্ঠু।

বেলা ১২টা পর্যন্ত গড়ে ৩০ শতাংশের মত ভোট পড়েছে বলে জানান রিটার্নিং কর্মকর্তা।

পৌরসভা থেকে ২০১১ সালের ৫ মে সিটি করপোরেশন হিসেবে যাত্রা শুরু করা নারায়ণগঞ্জ সিটির ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৭৪ হাজার ৯৩১। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৩৯ হাজার ৬৬২ ও নারী ভোটার ২ লাখ ৩৫ হাজার ২৬৯ জন। তাদের ভোটে নির্বাচিত হবেন একজন মেয়রসহ ২৭ জন সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও ৯ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর। মেয়র পদে সাতজন, ৯টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ৩৮ জন ও ২৭টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ১৫৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এর আগে ২০১১ সালের ৩০ অক্টোবর এই সিটির প্রথম নির্বাচন দলীয় প্রতীক ছাড়া অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী পান এক লাখ ৮০ হাজার ৪৮ ভোট। অন্যদিকে ৭৮ হাজার ৭০৫ ভোট পেয়ে তার নিকটতম অবস্থানে ছিলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী একেএম শামীম ওসমান। ওই নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার ভোটের মাত্র ৮ ঘণ্টা আগে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন। তিনি পান ৭ হাজার ৫০০ ভোট।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

রাজনীতি এর অারো খবর