অবশেষে গেজেটভুক্ত হলেন ৭১ বিসিএস ক্যাডার
অবশেষে গেজেটভুক্ত হলেন ৭১ বিসিএস ক্যাডার
২০১৬-১২-১৫ ০০:১২:০৫
প্রিন্টঅ-অ+


নতুন বছর আসার আগেই সুখবর পেলেন ৩৪তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ৬৪ জন। তাঁদের গেজেট প্রকাশ করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। ২০১৭ সালের ১ জানুয়ারি তাঁরা বিসিএস ক্যাডার হিসেবে চাকরিতে যোগ দেবেন।

নেতিবাচক গোয়েন্দা প্রতিবেদনের কারণে তাঁদের চাকরি আটকে গিয়েছিল। এ নিয়ে এ বছরের ৫ সেপ্টেম্বর প্রথম আলোয় ‘মনোনীত হয়েও চাকরি পাচ্ছেন না’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। পরে এ নিয়ে সম্পাদকীয়ও প্রকাশ করা হয়। এরপর সরকারের পক্ষ থেকে ফের তাঁদের গোয়েন্দা প্রতিবেদন যাচাই করে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়। এর মধ্যে ১৭ নভেম্বর সাতজনের এবং আজ ৬৪ জনের গেজেট প্রকাশ করা হয়।

গত বছরের ২৯ আগস্ট ২ হাজার ১৫৯ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ করে ৩৪তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হয়। এ বছরের ১৬ মে গেজেট প্রকাশিত হলে দেখা যায়, শতাধিক প্রার্থীর নাম নেই। অনুসন্ধানে দেখা গেছে, এঁদের বেশির ভাগের বিরুদ্ধেই অকারণে নেতিবাচক গোয়েন্দা প্রতিবেদন দেওয়া হয়। এর মধ্যে অন্তত ১০ জন ছিলেন যাঁরা ইতিবাচক গোয়েন্দা প্রতিবেদন নিয়েই সরকারি চাকরি করছিলেন। ৩৪তম বিসিএসে তাঁদের পুলিশ, প্রশাসনসহ বিভিন্ন ক্যাডারে চাকরি হয়েছিল।

৩৪তম বিসিএসের নিয়োগবঞ্চিত অন্তত ৮০ জন প্রার্থী বলেছিলেন, লাখো প্রার্থীর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে উত্তীর্ণ হলেও গেজেটে নাম না ওঠায় তাঁরা একদিকে যেমন চাকরিতে যোগ দিতে পারছিলেন না, অন্যদিকে সামাজিকভাবেও অসম্মানের স্বীকার হচ্ছিলেন।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, প্রথম আলোর প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পর সরকারের পক্ষ থেকে ফের তাদের গোয়েন্দা প্রতিবেদন যাচাই করা হয়। এর মধ্যে ৭১ জনের পক্ষে প্রতিবেদন আসে। কয়েকজনের বিরুদ্ধে এখনো নেতিবাচক প্রতিবেদন রয়েছে। আর অল্প কয়েকজনের ফের যাচাই-বাছাই চলছে। এ ছাড়া ইতিমধ্যে ৩৫তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশিত হয়ে যাওয়ায় তাঁদের গোয়েন্দা যাচাই প্রতিবেদনও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দিয়ে করানো হয়। অনেক জায়গায় যাচাই করতে গিয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে ফুল দিয়েও শুভেচ্ছা জানানোর ঘটনা ঘটে।

বুধবার গেজেটে যাঁদের নাম এসেছে, তাঁদের মধ্যে প্রশাসন ক্যাডারের আটজন, পুলিশের ছয়জন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তিনজনসহ বিভিন্ন ক্যাডারের কর্মকর্তা রয়েছেন। উত্তীর্ণ এই প্রার্থীরা বলেছেন, তাঁদের সমস্যার সমাধান হওয়ায় তাঁরা খুশি। তবে তাঁদের অনুরোধ, সুনির্দিষ্ট তথ্য ছাড়া যেন কাউকে আর এভাবে হয়রানি না করা হয়।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিশেষ প্রতিবেদন এর অারো খবর