ডিসেম্বরের শেষের দিকে শৈত্য প্রবাহের আশঙ্কা
ডিসেম্বরের শেষের দিকে শৈত্য প্রবাহের আশঙ্কা
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৬-১২-০৫ ০৫:৩৬:৪৬
প্রিন্টঅ-অ+


ডিসেম্বরের শেষের দিকে এক বা একাধিক শৈত্য প্রবাহের আশঙ্কা দেখছে আবহাওয়া অধিদফতরের বিশেষজ্ঞ কমিটি।

রোববার দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাস দিতে আবহাওয়া অধিদফতরের গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটি এ পূর্বাভাস দিয়েছে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন আবহাওয়া অধিদফতরের উপ পরিচাল আবদুর রহমান।

অধিদফতরের পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) ও বিশেষজ্ঞ কমিটির চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে আবহাওয়া অধিদফতরে কমিটির নিয়মিত বৈঠকে দীর্ঘমেয়াদী প্রতিবেদন দেয়া হয়।

এতে বলা হয়েছে, চলতি মাসে স্বাভাবিক শীত থাকবে। ডিসেম্বর মাসের শেষার্ধে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এক থেকে দুটি মৃদু বা মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যেতে পারে। তবে জানুয়ারি বা এর পরে কি হবে তা আরও পরে সুনির্দিষ্ট করে বলা যাবে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ডিসেম্বর মাসে বাংলাদেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হতে পারে। এ মাসে বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে যা নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। ডিসেম্বর মাসে শেষ রাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের উত্তরাঞ্চল ও নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারি বা ঘন কুয়াশা এবং অন্যত্র হালকা বা মাঝারি ধরণের কুয়াশা পড়তে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতরের বিশেষজ্ঞ কমিটির দীর্ঘ মেয়াদী প্রতিবেদনে জানানো হয়, নভেম্বর মাসে সারাদেশে সার্বিকভাবে স্বাভাবিক অপেক্ষা বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে। ঢাকা বিভাগে স্বাভাবিক এবং রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগে স্বাভাবিকের চেয়ে কম বৃষ্টি হয়েছে। খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে।

এদিকে আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, রোববার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা সিলেটের শ্রীমঙ্গলে ১৩ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

উল্লেখ্য, বাতাসের তাপমাত্রা ৬ থেকে ৮ ডিগ্রির মধ্যে হলে মাঝারি ও তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রির বেশি থেকে ১০ ডিগ্রির মধ্যে হলে তাকে মৃদু শৈত্য প্রবাহ বলে। তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে হলে তাকে বলে তীব্র শৈত্য প্রবাহ।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

পরিবেশ এর অারো খবর