মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন আরও ২৪ বীরাঙ্গনা
মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন আরও ২৪ বীরাঙ্গনা
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৬-১১-২৪ ০৭:১৮:৪৮
প্রিন্টঅ-অ+


সর্বোচ্চ ত্যাগ শিকার করে একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে অবদান রাখা আরো ২৪ জন বীরাঙ্গনাকে মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দিয়েছে সরকার। এ বীরাঙ্গনাদের মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দিয়ে গত ১৭ নভেম্বর গেজেট জারি করেছে সরকার।

এ নিয়ে মোট ১৭০ জন বীরঙ্গনা মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) ৩৭তম সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাদের মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দিয়ে গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পাওয়া বীরাঙ্গনাদের মধ্যে রয়েছেন- রংপুর সদরের রাধাবল্লভ গ্রামের আনোয়ারা বেগম, রংপুর সদরের তাজহাট ক্যান্টনম্যান্ট কলোনীর মোছা. আয়শা বেগম ও বরিশালের বাকেরগঞ্জের মোসা. আলেয়া বেগম।

বরিশালের গৌরনদীর নুরজাহান বেগম, সিলেট মৌলভীবাজারের কমিলা বেগম, ফরিদপুরের মধুখালীর ফুলজান বেগম, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আফিয়া খাতুন, ফতুল্লার নারায়ণগঞ্জের মমতাজ বেগম, হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জের মোছা. আলেয়া, ঢাকার মুগদাপাড়ার মোছা. হনুফা বেগম।

পাবনা আটঘরিয়ার শ্রীমতি সোনা বালা, মায়ারানী ও মোছা. জামেলা খাতুন।

কুড়িগ্রাম সদরের খলিলগঞ্জের মোছা. দেলো বেওয়া, মোছা. রহিমা খাতুন, মোছা. মজিদা বেগম, মোছা. ছালেহা বেওয়া, বছিরন বেগম, শ্রীমতি তরু বালা, মোছা. খুকী বেগম ও মোছা. গেন্দী বেওয়া।

কুড়িগ্রাম সদরের মোগলবাসার মোছা. ফাতেমা বেগম, কুড়িগ্রাম সদরের মোছা. খোতেজা বেগম ও চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার মোসা. মোমেনা বেগম।

তারা প্রতি মাসে ভাতাসহ মুক্তিযোদ্ধাদের মতো অন্যান্য সরকারি সুযোগ-সুবিধা পাবেন।

১৯৭১ সালে ডিসেম্বরে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মুক্তিযুদ্ধের সময় নির্যা‌তিত নারীদের ‘বীরাঙ্গনা’ স্বীকৃতি দিয়ে তাদের সম্মান জানান। তার নির্দেশনায় বীরাঙ্গনাদের ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের কাজ শুরু হয়, যা ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের আগ পর্য‌ন্ত চলছিল।

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর এই প্রক্রিয়াটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার পাশাপাশি সামরিক শাসকদের মাধ্যমে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে পাকিস্তানি জান্তার সহযোগীদের পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শুরু হয়।

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার বীরাঙ্গনাদের মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। এরইমধ্যে এ বিষয়ে আদালতের নির্দেশনাও আসে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিবিধ এর অারো খবর