দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক বিশ্ব সম্মেলন হবে বাংলাদেশে
দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক বিশ্ব সম্মেলন হবে বাংলাদেশে
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৬-১১-১৩ ২১:৫৩:২৪
প্রিন্টঅ-অ+


‘প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা’ শীর্ষক বিশ্ব সম্মেলন ২০১৭ সালে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে আগামী ১২-১৪ ডিসেম্বর ‘প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা’ শীর্ষক এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

নয়াদিল্লীতে অনুষ্ঠিত মিনিস্টিরিয়াল কনফারেন্সে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ ও সফলতা নিয়ে শুক্রবার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সচিব মো. শাহ কামাল, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রিয়াজ আহমেদ।
সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন ‘ন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি কমিটি অন অটিজম’র চেয়ারপারসন প্রধানমন্ত্রীর মেয়ে সায়মা হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ, সমাজকল্যাণ এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এ সম্মেলন আয়োজনে সহযোগিতা দেবে জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরাম এবং ইউনাইটেড ন্যাশনস অফিস ফর দ্য ডিজাস্টার রিস্ক রিডাকশন।

২২টি দেশের ৭০ জন প্রতিনিধি এবং বাংলাদেশের শতাধিক বেসরকারি সংস্থার পাঁচ শতাধিক প্রতিনিধি সম্মেলনে অংশ নেবেন।

আন্তর্জাতিক এই সম্মেলন আয়োজনের উদ্দেশ্য সম্পর্কে মায়া বলেন, “এই সম্মেলনের মাধ্যমে বাংলাদেশে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য দুর্যোগ ঝুঁকিহ্রাস বিষয়ক কার্যক্রম অন্য দেশের প্রতিনিধিদের সামনে তুলে ধরা হবে। কনফারেন্সে বাংলাদেশ দুর্যোগ ঝুঁকি ও জলবায়ু পরিবর্তন সহনশীল সমন্বিত কর্মসূচি গ্রহণের জন্য বিশ্ববাসীর প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। এছাড়া দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা এবং দুর্যোগ সহনশীলতাকে সুসংহত করতে প্রত্যেক দেশকে এখাতে বিনিয়োগ বাড়াতে এবং আলাদা তহবিল গঠন করতে বলা হয়েছে। বিশেষত সকল উন্নয়ন অংশীদার, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোকে তাদের প্রতিশ্রুতি ও সহায়তা আরো জোরদার করতে বলা হয়েছে।

মন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশ বিশ্ববাসীকে জানিয়েছে, বাংলাদেশ বিভিন্ন খাতভিত্তিক উন্নয়ন পরিকল্পনা ও কর্মসূচিতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনাকে অন্তর্ভূক্ত করছে। বিশেষত গ্রামীণ পর্যায়ে দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস, দারিদ্র্য নিরসন ও সামাজিক নিরাপত্তাকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে জলবায়ু পরিবর্তন সহায়তা তহবিল গঠন করে জলবায়ু সহনশীল প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

মায়া বলেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, বিশেষ করে সাইক্লোন, জলোচ্ছ্বাস ও বন্যার মত প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষকে নিরাপদ আশ্রয় দিতে বাংলাদেশের গৃহিত পদক্ষেপকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিশেষভাবে প্রশংসা করেছেন। প্রাকৃতিক দুর্যোগে বাংলাদেশের স্বেচ্ছাসেবকদের ভূমিকারও তিনি প্রশংসা করেন।

উল্লেখ্য, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রীর নেতৃত্বে সরকারি বেসরকারি পর্যায়ের কর্মকর্তা, এনজিও প্রতিনিধি ও শিক্ষাবিদ সমন্বয়ে একটি প্রতিনিধিদল এ কনফারেন্সে অংশগ্রহণ করেছিল।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

পরিবেশ এর অারো খবর