আজ জাতীয় নবান্ন উৎসব
আজ জাতীয় নবান্ন উৎসব
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৬-১১-১৩ ২০:৫৪:১৩
প্রিন্টঅ-অ+


আজ পহেলা অগ্রহায়ণ (মঙ্গলবার) প্রতি বছরের মতো এবারো উদযাপিত হচ্ছে জাতীয় নবান্ন উৎসব-১৪২৩। জাতীয় নবান্ন উৎসব উদযাপন পর্ষদের উদ্যোগে ঢাবির চারুকলা ইনস্টিটিউটের বকুলতলা এবং ধানমণ্ডি রবীন্দ্র সরোবর মুক্তমঞ্চে এবারের উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। সহযোগিতায় থাকবে ল্যাবএইড। উৎসবের উদ্বোধন করবেন ভাষা সংগ্রামী, লেখক সংস্কৃতিজন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

প্রথম পর্বের অনুষ্ঠানমালা সকাল ৭টা ১ মিনিটে শুরু হয়ে সকাল ৯টায় নবান্ন শোভাযাত্রার মাধ্যমে শেষ হবে। দ্বিতীয় পর্ব একযোগে ধানমণ্ডি রবীন্দ্র সরোবর মুক্তমঞ্চ ও চারুকলার বকুলতলায় দুপুর ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে।

উদ্বোধনী নবান্ন কথনে অংশ নেবেন পর্ষদের চেয়ারপার্সন লায়লা হাসান, আহ্বায়ক শাহরিয়ার সালাম এবং উৎসবের সহযোগী ল্যাবএইডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. এ এম শামীম।

দিনব্যাপী আয়োজনে জাতীয় নবান্নোৎসব উদ্‌যাপন পর্ষদ ছাড়াও সঙ্গীত, নৃত্য, আবৃত্তিতে অংশ নেবে উদীচী, ঋষিজ, খেলাঘর, বহ্নিশিখা, সত্যেন সেন শিল্পীগোষ্ঠী, ক্রান্তি, নৃত্যাঞ্চল, পঞ্চভাস্কর, আচিক, নটরাজ, নৃত্যম, দৃষ্টি, সৃষ্টি, গীতি শতদল, আনন্দন, নন্দন কলাকেন্দ্র, স্পন্দন, সুরবিহার, নৃত্যজন, সাম্য, বাংলাদেশ একাডেমি অব ফাইন আর্টস, অগ্নিবীনা, অভ্যূদয়, কাঁদামাটি, জাগো আর্ট সেন্টার, কত্থক নৃত্য সম্প্রদায়, বেনুকা, নৃত্যাক্ষ, নৃত্যাঙ্গন, আঙ্গিকাম, নৃত্যমঞ্চ, স্বভূমি লেখক শিল্পীকেন্দ্র, নন্দন, গ্রহস্বর, সুরধ্বনি, পঞ্চায়েত, মরমী লোকসঙ্গীত শিল্পীগোষ্ঠী, সুরতাল, কল্পরেখা, উদয়ন, নান্দিনিক নৃত্যকেন্দ্রসহ অর্ধশতাধিক সংগঠন। একক আবৃত্তি ও সঙ্গীতে অংশ নেবেন প্রতিথযশা শিল্পীরা। রাতে জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে উৎসব সমাপ্ত হবে।

উৎসব আয়োজনের বিস্তারিত নিয়ে শনিবার (১২ নভেম্বর) বেলা ১১টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার সেমিনার কক্ষে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে জাতীয় নবান্নোৎসব উদ্‌যাপন পর্ষদ। লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন পর্ষদের আহ্বায়ক শাহরিয়ার সালাম।

লিখিত বক্তব্যের তিনি সকলকে হিংসা বিদ্বেষ ভুলে অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে নবান্ন উৎসবে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, উন্নত দেশগুলোতে যেখানে নবান্ন উৎসব রাষ্ট্রীয়ভাবে আয়োজন হয়, সেখানে আমাদের দেশ কৃষিপ্রধান দেশ হওয়া সত্ত্বেও নবান্ন উৎসব রাষ্ট্রীয়ভাবে উদযাপন করা হয় না। তাই আবারো পহেলা অগ্রহায়ণে সরকারি ছুটি ঘোষণা করে এই উৎসব রাষ্ট্রীয়ভাবে পালনের দাবি জানাই।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চেয়ারপারসন লায়লা হাসান, কো-চেয়ারপারসন শুভ রহমান, কাজী মদিনা, মানজার চৌধুরী সুইট, ল্যাবএইডের কর্মকর্তা সাইফুর রহমান লেনিন, পর্ষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নাঈম হাসান সুজা, সদস্য আবুল ফারাহ পলাশ, এনামুল লতিফ, আলোক বসু, জসিমউদ্দিন হূদয়, অনিকেত আচার্য প্রমুখ।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর