প্রিন্স সুলতান অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলাদেশের ড. শফিকুল
প্রিন্স সুলতান অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলাদেশের ড. শফিকুল
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৬-১০-৩১ ১৮:৪৯:৩৬
প্রিন্টঅ-অ+


স্যাটেলাইট ডাটা ব্যবহারের মাধ্যমে কলেরার প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে পূর্বাভাস দেওয়ার কৌশল উদ্ভাবনের জন্য মর্যাদাপূর্ণ প্রিন্স সুলতান বিন আবদুল আজিজ ইন্টারন্যাশনাল প্রাইস ফর ওয়াটার (পিএসআইপিডব্লিউ) পুরস্কার পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন বিজ্ঞানী ড. শফিকুল ইসলাম।

যুক্তরাষ্ট্রের টাফটস ইউনিভার্সিটিতে কর্মরত এই গবেষক ও তার দল নাসার স্যাটেলাইট থেকে প্রাপ্ত ক্লোরোফিল ডাটা ব্যবহার করে কমপক্ষে তিন থেকে ছয় মাস আগেই কোনো অঞ্চলে কলেরার প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বাণী করার একটি মডেল উদ্ভাবন করেছেন। তাদের এ মডেলের পরীক্ষণও সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

এই গবেষণার জন্য ড. শফিকুল ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড ইউনিভার্সিটির ড. রিটা কলওয়েল যৌথভাবে পুরস্কার পেয়েছেন। পিএসআইপিডব্লিউ’র ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, সপ্তমবারের মতো এই পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। ৫ অক্টোবর বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। আগামী ২ নভেম্বর নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদরদফতরে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কার হস্তান্তর করা হবে।

ড. রিটা কলওয়েল বিশব্যাপী স্বীকৃত সমুদ্রবিশেষজ্ঞ ও অণুজীববিজ্ঞানী। তিনি ও তার গবেষক দল প্রথম স্যাটেলাইট ডাটা ব্যবহার করে পূর্ব এশিয়ার জন্য কলেরার প্রাদুর্ভাবের পূর্বাভাস মডেল তৈরি করেন। ড. শফিকুল ও তার সহকর্মীরা রিটা কলওয়েলের উদ্ভাবিত পদ্ধতি ব্যবহার করেই বঙ্গোপসাগর অঞ্চলে ক্লোরোফিলের মাত্রার সঙ্গে ডায়রিয়া প্রাদুর্ভাবের যোগাযোগ খুঁজে পান। স্যাটেলাইট উপাত্তের পর তারা এখন ভূপৃষ্ঠ থেকে প্রাপ্ত উপাত্ত নিয়ে কাজ করছেন।

পুরস্কার পাওয়ার অনুভূতি জানিয়ে এক ই-মেইল বার্তায় ড. শফিকুল বলেন, আমি আনন্দিত, সম্মানিত ও কৃতজ্ঞ।

আশির দশকে বুয়েট থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক পাসের পর তিনি যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান এবং এমআইটিতে পিএইচডি করেন। ড. শফিকুল বর্তমানে টাফটস ইউনিভার্সিটির সিভিল ও এনভারমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক এবং ওয়াটার ডিপ্লোম্যাসি প্রোগ্রামের পরিচালক। ভারত, বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও পানি উন্নয়ন পরিকল্পনাতেও পরামর্শক হিসেবে যুক্ত আছেন তিনি।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বাস্থ্য এর অারো খবর