কমিটিতে নবাগত নেতাদের যা বললেন শেখ হাসিনা
কমিটিতে নবাগত নেতাদের যা বললেন শেখ হাসিনা
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৬-১০-৩১ ০৬:৪৪:৩১
প্রিন্টঅ-অ+


‘তোমাদের দিয়ে আমি চারা গাছ রোপন করেছি। আমার বিশ্বাস সব চারা গাছগুলো এক সময় অনেক বড় হবে। আমার সিলেকশন কখনও ভুল হতে পারে না।’ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদে আসা নবাগত নেতাদের নিয়ে এমন প্রত্যাশার কথা জানান আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নবাগত এসব নেতারা ব্যক্তিগতভাবে দলের সভাপতি শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা জানাতে এবং সালাম ও দোয়া নিতে তার সরকারি বাসভবন গণভবনে গেলে তাদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন তিনি। এসময় শেখ হাসিনা নতুন নেতাদের প্রতি তার অনেক প্রত্যাশা রয়েছে বলে ব্যক্ত করেন। ২০তম সম্মেলনের মধ্য দিয়ে এবার দলে একঝাঁক নতুন মুখ নেতা নির্বাচিত হয়েছেন। শনিবার ও রবিবার দুদিন ধরে এই নেতারা গণভবনে গিয়েছেন শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতে।এই নতুন নেতারা বাংলা ট্রিবিউনকে এসব তথ্য জানিয়েছেন।
নবাগত তরুণ নেতাদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, ‘তোমাদের অনেক কাজ করতে হবে। নেতা হয়ে বসে থাকলে চলবে না। তোমাদের পদ দেওয়া হয়েছে কাজ করার জন্যে। এখন নতুনদের সময়, নতুনরাই দলকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’ জবাবে দলের পদ পাওয়া নেতারা সবাই দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার কাছে অঙ্গিকার করেছেন এই বলে যে, ‘আপা আপনি যে দায়িত্ব দেবেন তা আমরা পালন করব।’ পরে সবাই শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে, সালাম করে ও দোয়া চেয়ে বেরিয়ে আসেন গণভবন থেকে।
শনিবার শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাত করতে যান আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, আনোয়ার হোসেন, মারুফা আক্তার পপি, গোলাম রাব্বানী চিনু, বিপ্লব বড়ুয়া ও বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন। সবাই শেখ হাসিনার দোয়া নেওয়ার পাশাপাশি কৃতজ্ঞতা জানাতে যান।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে মারুফা আক্তার পপি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘‘আমরা যারা নতুন মুখ, সবাই একত্রিত হয়ে শনিবার গণভবনে যাই। সবাই আন অফিসিয়ালি নেত্রীর (শেখ হাসিনা) সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলাম। নেত্রীকে সালাম করেছি। নতুন পথচলায় আমরা সবাই প্রধানমন্ত্রীর দোয়া চেয়েছি এবং তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছি। নেত্রী আমাদের বলেন, ‘আমি চারা গাছ রোপন করেছি। আমার বিশ্বাস এই চারা গাছগুলো এক সময় অনেক বড় হবে। আমি বিশ্বাস করি, আমার সিলেকশন ভুল হতে পারে না।’ নেত্রী চান আমরা যেন দলটাকে আরও গতিশীল করি। এগিয়ে নিয়ে যাই।’’

ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, ‘নেত্রী আমাদের চারা গাছ হিসাবে দলে জায়গা করে দিয়েছেন। তিনি বিশ্বাস করেন, এই চারা গাছগুলো অনেক বড় হবেন।’ নেত্রী আমাকে অনেকটা মজা করে বলেন, ‘তুমি ভাল করে চাইনিজ ভাষা শেখো।’

দেলোয়ার হোসেন সালাম করতে গেলে প্রধানমন্ত্রী তাকে বলেন, ‘তোর অনেক কাজ, তুই পরিবেশ সম্পাদক। বাংলাদেশকে সবুজায়ন করতে হবে। পরিবেশের ওপর অনেক কাজ করতে হবে।’ জবাবে দেলওয়ার বলেন, ‘আপা সবই করা শেষ। আপনি চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ পুরস্কারও পেয়ে গেছেন। আমার জন্যে তো আর কাজ নেই।’

গোলাম রাব্বানী চিনু বলেন, নেত্রী আমাদের বলেন, ‘পদ নিয়ে কেউ বসে থাকতে পারবে না। পদ দেওয়া হয়েছে কাজ করার জন্যে। তোমাদের অনেক কাজ করতে হবে।’

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

রাজনীতি এর অারো খবর