দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশে নারী পুরুষের ব্যবধান সবচেয়ে কম!
দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশে নারী পুরুষের ব্যবধান সবচেয়ে কম!
স্টাফ রিপোর্টার
২০১৬-১০-২৭ ০২:৫২:৩৫
প্রিন্টঅ-অ+


গত বছরের ধারাবাহিকতায় নারী-পুরুষ ব্যবধান কমিয়ে আনার ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ায় নিজেদের শীর্ষ অবস্থান ধরে রেখেছে বাংলাদেশ। তবে পিছিয়েছে তাদের বৈশ্বিক অবস্থান। মঙ্গলবার ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে এসব কথা জানা গেছে। তারা জানিয়েছে, রাজনৈতিক অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে নারীদের অগ্রগতি হলেও মজুরি বৈষম্যকে যথাযথভাবে মোকাবেলা করতে ব্যর্থ হয়েছে বাংলাদেশ।
নারী-পুরুষ ব্যবধান কমিয়ে সমতা নিশ্চিতের উদ্দেশ্যে প্রতি বছর বৈশ্বিক লিঙ্গ বৈষম্য বিষয়ক সূচক (গ্লোবাল জেন্ডার গ্যাপ ইনডেক্স-২০১৬) প্রকাশ করে থাকে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম। তাদের ২০১৬ সালের প্রতিবেদন অনুযায়ী গত বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও তারা দক্ষিণ এশিয়ায় অন্য সব দেশের থেকে বৈষম্য দূরীকরণের ক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে। তবে গতবছরের সাপেক্ষে তাদের এ সংক্রান্ত বৈশ্বিক অবস্থান পিছিয়ে গেছে। গত বছরে বাংলাদেশ তালিকার ৬৪ তম অবস্থানে থাকলেও এবার সেখান থেকে ৭ ধাপ পিছিয়ে বাংলাদেশের বৈশ্বিক অবস্থান দাঁড়িয়েছে ৭২ এ।
নারী-পুরুষ সমতা সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ। বৈশ্বিকভাবে নারী-পুরুষ সমতা সূচকে সবার শীর্ষে রয়েছে আইসল্যান্ড আর সূচকে সবার শেষে রয়েছে ইয়েমেন। মঙ্গলবার ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম প্রকাশিত গ্লোবাল জেন্ডার গ্যাপ ইনডেক্স-২০১৬ এর প্রতিবেদনে বিশ্বে নারী-পুরুষ সমতার এমন চিত্র উঠে এসেছে।

বিশ্বের ১৪৪টি দেশের শিক্ষাগত সাফল্য, স্বাস্থ্য, অর্থনেতিক সুযোগ এবং রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন এ চারটি মূল ক্ষেত্রে নারী-পুরুষের সমতায় কেমন অগ্রগতি হয়েছে তার ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয় রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে লৈঙ্গিক ব্যবধান কমিয়ে আনার ক্ষেত্রে চলতি বছর বাংলাদেশের ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে। তবে শ্রমশক্তিতে অংশগ্রণের ক্ষেত্রে নারী-পুরুষের মধ্যে এখনও বড় ব্যবধান রয়েছে।

সমতা সূচকে দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশের পর দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত। তবে বৈশ্বিকভাবে ভারতের অবস্থান ৮৭। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সূচকে সবচেয়ে নিচের অবস্থানে রয়েছে পাকিস্তান। আর তার আগে আগে রয়েছে ভুটানের নাম।

বৈশ্বিকভাবে সমতা সূচকে পাকিস্তানের অবস্থান ১৪৩ আর ভুটানের অবস্থান ১২১ তম। শিক্ষাগত সাফল্যের দিক দিয়ে দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের কোনও দেশই নারী-পুরুষের ব্যবধান পুরোপুরি ঘুচাতে পারেনি। তবে স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে কেবল শ্রীলঙ্কা এ ব্যবধান পুরোপুরি ঘুচাতে সক্ষম হয়েছে।

বৈশ্বিক সূচকে আইসল্যান্ডের পর রয়েছে ফিনল্যান্ড, নরওয়ে, সুইডেন, রুয়ান্ডা, আয়ারল্যান্ড,ফিলিপাইন,স্লোভেনিয়া ও নিউজিল্যান্ড।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর