নেপালের সাথে সরাসরি রেল যোগাযোগ শুরু হচ্ছে
নেপালের সাথে সরাসরি রেল যোগাযোগ শুরু হচ্ছে
২০১৬-১০-১৭ ২০:৩১:১৮
প্রিন্টঅ-অ+


২০১৮ সালের মধ্যে বাংলাদেশের সঙ্গে নেপালের সরাসরি রেল যোগাযোগ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত ও নেপালের (বিবিআইএন) মধ্যে আন্তঃসংযোগ প্রকল্পের আওতায় এই রেল যোগাযোগ স্থাপন করা হবে। রোববার সচিবালয়ে নেপালের বাণিজ্যমন্ত্রী রোমি গাওচান তাসাকালির সঙ্গে বৈঠক শেষে তোফায়েল আহমেদ সাংবাদিকদের এ কথা জানান। বৈঠকে বিবিআইএন চুক্তির আওতায় নেপাল ২০১৮ সালের মধ্যে মংলা থেকে ভারতের সিনবাদ হয়ে নেপালের বীরগঞ্জ পর্যন্ত রেলপথ ও তাদের নাগরিকদের জন্য স্থল ভিসা চেয়েছে। আর বাংলাদেশ চেয়েছে নেপালে উৎপাদিত জলবিদ্যুৎ ও রফতানি পণ্যে শুল্কমুক্ত সুবিধা।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, নেপালের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়াতে দুই দেশের মধ্যে রেললাইন চালু করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। নেপাল মংলা বন্দর ব্যবহারে আগ্রহী। তাই মংলা থেকে খুলনা পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণ শেষ হলেই দুই দেশের মধ্যে স্থলপথে পণ্য আনা-নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হবে। রেল ট্রানজিটটি বাস্তবায়িত হলে বঙ্গোপসাগর দিয়ে পণ্য আমদানি করে মংলা নৌবন্দরে তা খালাসের পর মংলা-খুলনা হয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের রোহানপুর স্থলবন্দরে তা নিতে চায় নেপাল। এরপর ভারতের সিনবাদ রুট ব্যবহার করে দ্রুততম সময়ে তা নেপালের বীরগঞ্জে নেওয়া যাবে। ২০১৮ সালের মধ্যে রেলপথে পণ্য আনা-নেওয়া শুরু হবে বলে আশা করেন মন্ত্রী।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ভারতকে সঙ্গে নিয়ে নেপালে জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করবে বাংলাদেশ। তবে নেপালে এখন বিদ্যুৎ ঘাটতি রয়েছে। আগামী দু-এক বছরের মধ্যে নেপাল যদি তাদের ঘাটতি মেটাতে পারে, তবে বিদ্যুৎ আমদানি করা যাবে। যৌথভাবে জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, প্রাথমিকভাবে দুটি জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রের মাধ্যমে দেড় হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হবে।

নেপালের বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, দুদেশের মধ্যে রেল যোগাযোগ স্থাপন হলে দ্রুত পণ্য সরবরাহ সম্ভব হবে। তারা এ দেশের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়াতে আগ্রহী। তিনি বলেন, সহজেই নেপালে ২০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের সুযোগ রয়েছে। এ ক্ষেত্রে তার দেশের সরকার সহায়ক নীতি গ্রহণ করেছে। শিগগিরই বাংলাদেশ, ভারত ও নেপাল যৌথভাবে জলবিদ্যুৎ প্রকল্প গ্রহণ করবে।

বৈঠকে দুদেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

অর্থনীতি এর অারো খবর