নামকরণ ছাড়াই উদ্বোধন করা হচ্ছে সেতুটি
নামকরণ ছাড়াই উদ্বোধন করা হচ্ছে সেতুটি
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৬-১০-১৬ ০৪:৫০:০৩
প্রিন্টঅ-অ+


নামকরণ নিয়ে জটিলতার কারণে দীর্ঘদিন ধরে উদ্বোধনের অপেক্ষায় থাকা মানিকগঞ্জের সেই সেতুটি অবশেষে খুলে দেয়া হচ্ছে।

রোববার বিকেল ৩টার দিকে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক বেউথা কালিগঙ্গা নদীর ওপর নির্মিত সেতুটির উদ্বোধন করবেন।

গত ৩০ জুলাই নব-নির্মিত ওই সেতুটির উদ্বোধন তারিখ ঠিক করা হলেও নামকরণের জটিলতার কারণে তা সম্ভব হয়নি। পৌরসভার সাবেক মেয়র রমজান আলী চেয়েছিলেন তার নামে সেতুটির নামকরণ করতে। অন্যদিকে মানিকগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপনের ইচ্ছা ছিল সেতুটি তার প্রয়াত বাবা আব্দুল মালেকের নামে করতে। দুই প্রভাবশালী নেতার দ্বন্দ্বের কারণে সেতুটির উদ্বোধন দীর্ঘদিন বন্ধ থাকে। অবশেষে ২৯৭ মিটার সেতুটি নামকরণ ছাড়াই উদ্বোধন করা হচ্ছে।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর (এলজিআরডি) সূত্রে জানা গেছে, ২০১৩ সালে পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় কালীগঙ্গা নদীর ওপর সেতুটি নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়। সেতুটি নির্মাণের কাজ পায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নাভার কনস্ট্রাকশন লিমিটেড। ওই বছরের ১২ সেপ্টেম্বর তৎকালীন প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী (বর্তমান এলজিআরডি মন্ত্রী) ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন সেতুটি নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তুর স্থাপন করেন। প্রথমে সেতুটি নির্মাণের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছিল ৪০ কোটি ৫৪ লাখ ৫৯ হাজার ৩২২ টাকা। কিন্তু সেতুর দুই পাশে অতিরিক্ত রাস্তার কাজ না হওয়ায় ব্যয় কমে ৩৮ কোটি ৭৮ লাখ ৪৭ হাজার ১১৪ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

নাম ছাড়াই উদ্বোধন হচ্ছে সেই সেতু- এ বিষয়ে এলজিইডির একজন প্রকৌশলী বলেন, প্রায় তিন মাস আগে সেতুটি উদ্বোধন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু উপরের নির্দেশ না পাওয়ায় সেতুটির উদ্বোধন বন্ধ ছিল। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর থেকে নির্দেশ পেয়ে রোববার সেতুটি উদ্বোধনের দিন ঠিক করা হয়েছে। স্থানীয় সংসদ সদস্য ও স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন সেতুটির উদ্বোধন করবেন।

মানিকগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র রমজান আলী বলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে সেতুর নামকরণ নিয়ে পরিপত্র জারি হয়েছে। সেখানে সেতুর নাম উল্লেখ করা হয়েছে ‘রমজান আলী সেতু’। এলজিআরডি মন্ত্রণালয় থেকে সেতুর নাম আবার পরিবর্তন করা হয়েছে বলে শুনেছি। এ বিষয়ে আমি আর কিছু বলতে চাই না।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সেতুর উত্তর পাশে সৌন্দর্য্য বর্ধনের জন্য নামফলক দিয়ে টাইলস বসানোর কাজ চলছে। ফলকে লেখা রয়েছে ‘মানিকগঞ্জ জেলার সদর উপজেলাধীন বেউথা খেয়া ঘাটে কালিগঙ্গা নদীর ওপর নির্মিত ২৯৭ মিটার ব্রিজ-চলাচলের জন্য শুভ উদ্বোধন। ফলকে প্রধান অতিথি হিসেবে স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপনের নাম লেখা রয়েছে। অপরপাশে পুনরায় সেতুর রং করার কাজ হচ্ছে। অনেকে সেতুটি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করতে ব্যস্ত রয়েছে। এছাড়া দক্ষিণ পাশের গোলচত্বরে মাটি ভরাট করে সেখানে ফুলগাছ লাগানোর কাজও চলছে।
এদিকে আলোচিত এই সেতুটি উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ব্যাপক প্রচারণা চালাচ্ছে জেলা আওয়ামী লীগ। ডিসের লাইনে দিনরাত বিজ্ঞাপন চলছে। চিঠির মাধ্যমে দাওয়াত দেয়া হয়েছে গণ্যমান্যদের।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি থাকবেন, জেলা প্রশাসক রাশিদা ফেরদৌস, পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান, জেলা পরিষদের প্রশাসক গোলাম মহিউদ্দিন, জজ কোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্দুস সালাম, পৌরসভার মেয়র গাজী কামরুল হুদা সেলিম।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর