সেকেন্ডে ১২০ টেরাবিট গতির সাবমেরিন কেবল স্থাপন করবে গুগল ও ফেসবুক
সেকেন্ডে ১২০ টেরাবিট গতির সাবমেরিন কেবল স্থাপন করবে গুগল ও ফেসবুক
স্টাফ রিপোর্টার
২০১৬-১০-১৫ ১৯:৪৪:২০
প্রিন্টঅ-অ+


যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে হংকং পর্যন্ত ১২ হাজার ৮০০ কিলোমিটার দীর্ঘ সাবমেরিন কেব্ল স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে গুগল ও ফেসবুক। কেব্লটি সেকেন্ডে ১২০ টেরাবিট (১ টেরাবিট = ১০২৪ গিগাবিট) গতিতে তথ্য আদান-প্রদান করতে পারবে। পুরোদমে কাজ শুরু হলে এই কেব্লটিই হবে প্রশান্ত মহাসাগরের তলদেশে স্থাপন করা সর্বোচ্চ গতির সাবমেরিন কেব্ল।
‘প্যাসিফিক লাইট কেব্ল নেটওয়ার্ক’ নামের কেব্লটি স্থাপনে চীনা প্রতিষ্ঠান প্যাসিফিক লাইট ডেটা কমিউনিকেশনের সঙ্গে কাজ করবে গুগল ও ফেসবুক। গত বছরের শেষ দিকে যখন প্রকল্পটি প্রথম ঘোষণা দেওয়া হয়, তখন এর বাস্তবায়ন ব্যয় ধরা হয়েছিল প্রায় ৪০ কোটি ডলার। তখন পর্যন্ত এই প্রকল্পের সঙ্গে গুগল ও ফেসবুক যুক্ত হয়নি। প্যাসিফিক লাইট কেব্ল নেটওয়ার্কের প্রধান বৈশিষ্ট্য হলো এতে ৫ জোড়া কেব্ল থাকছে। প্রতি জোড়া সেকেন্ডে ২৪ টেরাবিট ব্যান্ডউইটথ সরবরাহ করতে পারে।
সাবমেরিন কেব্ল স্থাপনে গুগল এই প্রথম নয়। এর আগেও পাঁচটি প্রকল্পে যুক্ত থেকেছে প্রতিষ্ঠানটি। এদিকে ফেসবুকের জন্যও এটি প্রথম নয়। ফেসবুক ও মাইক্রোসফট যৌথভাবে ট্রান্স-আটলান্টিক কেব্ল স্থাপনে কাজ করছে। প্যাসিফিক লাইট কেব্লের চেয়েও সেটি বেশি ক্ষমতার।
তবে গুগলের সঙ্গে এটাই ফেসবুকের প্রথম অংশীদারত্ব। নতুন কেব্ল স্থাপিত হলে এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে গুগল গ্রাহকেরা দ্রুততম সময়ে ডেটা আদান-প্রদান করতে পারবেন। একই সঙ্গে উপকৃত হবেন ফেসবুক ব্যবহারকারীরাও।
সূত্র: টেকক্রাঞ্চ

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি এর অারো খবর