কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের নিয়োগ পরীক্ষায় উচ্চ প্রযুক্তির নকল করতে গিয়ে আটক ১২
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের নিয়োগ পরীক্ষায় উচ্চ প্রযুক্তির নকল করতে গিয়ে আটক ১২
স্টাফ রিপোর্টার
২০১৬-১০-০৮ ০৪:১২:৫১
প্রিন্টঅ-অ+




শরীরে স্থাপন করা হয়েছে মোবাইল ফোনের ব্যাটারি ও যন্ত্রাংশ। আর কানে ছোট্ট এক যন্ত্র, যা দিয়ে কথা শোনা ও বলা যায়। অত্যাধুনিক ওই যন্ত্র ব্যবহার করে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগ পরীক্ষায় নকল করছিলেন কয়েকজন। শুরুতে পরীক্ষক উচ্চ প্রযুক্তির ওই নকল ধরতে পারেননি। কিন্তু একাধিক পরীক্ষার্থীর কানে ছোট্ট ওই যন্ত্র দেখে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক হামিদুর রহমানের সন্দেহ হয়। এভাবে একে একে ১২ জন পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে ওই উচ্চ প্রযুক্তির নকল যন্ত্র আটক করা হয়।

আজ শুক্রবার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ওই নিয়োগ পরীক্ষায় শুধু উচ্চ প্রযুক্তি ব্যবহার করে অসদুপায় অবলম্বনকারী আটক হননি। একজনের হয়ে আরেকজন পরীক্ষা দিতে এসে আটক হয়েছেন আরও পাঁচজন। তাঁদের মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ১৫ দিন বিনাশ্রমে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। আটক নকলকারীদের র‍্যাবের হেফাজতে দেওয়া হয়েছে। ভুয়া পরীক্ষার্থীরা হলেন সুজন আলী, নবাব আলী, এস এম দিদারুল ইসলাম, আসিফ মো. রব্বানী ও বি এম ফেরদৌস হোসেন।

এ ব্যাপারে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক হামিদুর রহমান বলেন, ‘গত বছর ৪২ জন ভুয়া পরীক্ষার্থী ও নকলকারীকে আমরা আটক করেছিলাম। এবার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়লেও ভুয়া পরীক্ষার্থী ও নকলকারী কমেছে। কিন্তু উচ্চ প্রযুক্তি ব্যবহার করে নকল করার এই প্রবণতা আমাদের কাছে একদম নতুন। তাই ওই যন্ত্র ও পরীক্ষার্থীদের আমরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে তুলে দিয়েছি। যাতে অন্য কোনো পরীক্ষায় এ ধরনের প্রযুক্তি ব্যবহার করে নকল না হয় সে জন্য তারা কাজ করছে।’

ইলেকট্রনিক ডিভাইসসহ আটক পরীক্ষার্থীরা হলেন সোহেল রানা, আবুল বাসার, দেলওয়ার হোসেন, আশরাফুল ইসলাম, তপন কুমার সরকার, সোহেল রানা, ত্রিদিব কুমার হাজরা, সাজেদুর রহমান, মজুমদার রহমান, জিয়ারুল ইসলাম জুয়েল, পাপিয়া খাতুন ও রফিকুজ্জামান।

র‍্যাব সূত্রে জানা গেছে, তাঁরা পরীক্ষার্থীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে ও যন্ত্রগুলো পরীক্ষা করে দেখছে যে এর সঙ্গে কোনো সংঘবদ্ধ চক্র জড়িত আছে কি না।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, আজ সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের (আইবিএ) তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত এই পরীক্ষায় ১৩টি কেন্দ্রে ২০ হাজার ৯৩৫ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেন।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

আইন ও অধিকার এর অারো খবর