উদ্বোধনেই স্মার্টকার্ড পাচ্ছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা
উদ্বোধনেই স্মার্টকার্ড পাচ্ছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৬-১০-০২ ০৫:২৭:৫৮
প্রিন্টঅ-অ+


উন্নতমানের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ রোববার সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এর উদ্বোধন করা হবে। এ লক্ষ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

সংস্থাটির দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রথমে রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদের কার্ডটি তুলে দেওয়া হবে। এরপর প্রধামন্ত্রীর হাত থেকে জাতীয় ক্রিকেট দলের খোলোয়াড়রা স্মার্টকার্ড নেবেন।

ইসির স্মার্টকার্ড প্রকল্প পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জামান মো. সাহেল উদ্দিন সংবাদমাধ্যমকে জানান, উদ্বোধনের পর প্রথমে রাষ্ট্রপতিকে কার্ড তুলে দেবার পর বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হাতে তুলে দেয়া হবে। এরপর ৩ অক্টোবর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কার্ড বিতরণ করা হবে। এক্ষেত্রে ঢাকার দুই সিটির উত্তরা থানা (১ নম্বর ওয়ার্ড) ও রমনা থানা (১৯, ২০ ও ২১ নম্বর ওয়ার্ড) এবং কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি উপজেলার দাসিয়াছড়ায় প্রথম কার্ড বিতরণ হবে। প্রথম দফায় দেশের নয় কোটি ভোটার পাবেন কার্ড। যাদের ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সরবরাহ করা হবে। এজন্য ব্যয় ধরা ৮৩ কোটি টাকা। প্রতিটি কার্ড বিতরণে ব্যয় হবে নয় টাকার বেশি। এছাড়া স্মার্ট প্রস্তুতে ব্যয় হয়েছে ২ ডলার। যার মেয়াদ থাকবে ১০ বছর। এরপর ফি দিয়ে কার্ড নবায়ন করতে হবে।

ইসির পরিকল্পনা অনুযায়ী, রমনা থানায় ভোটারদের বেইলি রোডের সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ ক্যাম্পে ৩ থেকে ১০ অক্টোবর, সেগুনবাগিচা হাইস্কুল ক্যাম্পে ১৩ অক্টোবর থেকে ২০ অক্টোবর এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার উদয়ন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ক্যাম্পে ২২ থেকে ২৭ অক্টোবর স্মার্টকার্ড বিতরণ করা হবে।

এরপর ধারাবাহিকভাবে অন্য এলাকাগুলোতেও উন্নতমানের এ পরিচয়পত্র বিতরণ হবে। সময়সূচি পরবর্তীতে জানাবে নির্বাচন কমিশন। দাসিয়ছাড়াতেও বিতরণ শেষে পুরো উপজেলায় ধারাবাহিকভাবে স্মার্টকার্ড বিতরণ হবে। ঢাকায় ৫০ লাখ এবং কুড়িগ্রামে ফুলবাড়িতে ৭৫ হাজার ভোটার স্মার্টকার্ড পাবেন।

ঢাকা ও কুড়িগ্রামের পর দেশের অন্যস্থানেও স্মার্টকার্ড বিতরণে যাবে ইসি। এক্ষেত্রে দ্বিতীয় ধাপে দেশের অবশিষ্ট নয় সিটি, তৃতীয় ধাপে ৬৪ জেলা ও শেষ ধাপে উপজেলায় কার্ড বিতরণ করা হবে। দেশে বর্তমান ভোটার সংখ্যা ১০ কোটি। কিন্তু কার্ড বিতরণ হবে ৯ কোটি। অবশিষ্ট ১ কোটি ভোটারদের স্মার্টকার্ড বিতরণের জন্য আরেকটি প্রকল্প হাতে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। কোনো প্রকল্প না নেওয়া গেলে সরকারি তহবিল থেকে অর্থের জোগান দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ইসি সচিব সিরাজুল ইসলাম।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

ক্রীড়া এর অারো খবর