অঙ্গদান ছাড়াই হবে অঙ্গ প্রতিস্থাপন
অঙ্গদান ছাড়াই হবে অঙ্গ প্রতিস্থাপন
ডেস্ক রিপোর্ট
২০১৬-০৮-২৯ ০৩:১৯:০৯
প্রিন্টঅ-অ+


অন্যের দান করা অঙ্গ প্রতিস্থাপনের ঘটনা চিকিৎসাবিজ্ঞানে এখন হরহামেশা ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু এবার অঙ্গ প্রতিস্থাপনে অন্যের দানের উপর নির্ভরতা শেষ করার আশা করছেন বিজ্ঞানীরা।

বিজ্ঞানীরা গবেষণাগারে নতুন এক প্রতিস্থাপনযোগ্য কিডনি বা বৃক্ক বানিয়েছেন। এই কিডনি তাদের আশা পূরণে এক ধাপ এগিয়ে নিয়েছে, ভাষ্য ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড মিরর-এর।

একটি থ্রিডি কালচার আর বিভিন্ন রাসায়নিক উপাদানের মিশ্রণে তারা নতুন এক উপায় বের করেছেন। এর মাধ্যমে বিভিন্ন অঙ্গের নতুন কোষের সীমাহীন সরবরাহ নিশ্চিত করা যাবে। প্রাথমিক অবস্থায় থাকা এসব প্রোজেনিটর কোষ গবেষণা বা রোগের চিকিৎসায় কিডনি টিসু প্রতিস্থাপনে ব্যবহার করা যেতে পারে। সেই সঙ্গে দাতাদের অভাবের সমস্যা দূর করে সম্পূর্ণ কৃত্রিম অঙ্গ দিয়েই অঙ্গ প্রতিস্থাপন সম্পন্ন করা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

কিডনি শরীরে প্রবাহিত রক্ত-কে পরিশোধন করে এ থেকে বর্জ্য আর বাড়তি পানি সরিয়ে ফেলে। কিডনির রোগ-কে সাইলেন্ট কিলার হিসেবে আখ্যা দেওয়া হয়।

এই গবেষণার একজন গবেষক যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের সল্ক ইনস্টিটিউট-এর অধ্যাপক জুয়ান বেলমোন্টে বলেন, "কীভাবে অসংখ্য প্রিকারসার কিডনি কোষ তৈরি ও ব্যবস্থাপনা করা যায় তার কিছু আদর্শের প্রমাণ আমরা দিয়েছি। এই কোষগুলোর সরবরাহ নিশ্চিত করার মাধ্যমে গবেষণাগারে কার্যকরী অঙ্গ উৎপাদনের শুরু করা যেতে পারে।"

স্টেম কোষের মতো প্রোজেনিটর কোষ হচ্ছে কিছু অপরিপক্ক কোষ, যেগুলোকে কিছু বিশেষ টিসুতে আলাদা করা হয়। এই কোষগুলোর মধ্যে কিডনির নেফ্রন একটি।

এর আগে গবেষণাগারে বানানো স্টেম কোষগুলো ব্যবস্থাপনার চেষ্টা প্রায়ই ব্যর্থ হয়। কখনও কোষগুলো মরে যায় বা কখনও সেগুলো এগিয়ে নেওয়ার সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায়।

ইদুঁর থেকে নেওয়া এনপিসি (নেফ্রন প্রজেনিটর সেলস) নিয়ে কাজ করে গবেষকরা দেখেন, যদি তারা থ্রিডি কালচার ব্যবহার করে কোষগুলো রাখেন, তবে সেগুলো ১৫ মাসেরও বেশি সময় ধরে রাখা সম্ভব। পরবর্তীতে তারা মানুষের এনপিসি নিয়ে কাজ করে, সেখানেও দীর্ঘ মেয়াদে এই কোষ রাখা সম্ভব হয়।

আরেক গবেষক ড. তোশিকাজু আরাওকা বলেন, "কিছু প্রজেনিটর কোষ আছে সেগুলোকে একত্র করে পুরো একট অঙ্গ বানানো যায়।"

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বাস্থ্য এর অারো খবর