শুরু হচ্ছে বিপিএলের তৃতীয় আসর
শুরু হচ্ছে বিপিএলের তৃতীয় আসর
২০১৫-১১-২১ ১৮:৫৩:২৪
প্রিন্টঅ-অ+


আজ রোববার দুপুর ২টায় রংপুর রাইডার্স ও চিটাগং ভাইকিংসের ম্যাচ দিয়ে শুরু বিপিএলের তৃতীয় আসর। সন্ধ্যা পৌনে সাতটায় দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও ঢাকা ডায়নামাইটস।

মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে প্রতি দিনই হবে দুটি করে ম্যাচ। ঢাকা পর্বের প্রথম ভাগ শেষ হবে ২৭ নভেম্বর। মাঝে দুই দিন বিরতি দিয়ে ৩০ নভেম্বর থেকে ৩ ডিসেম্বর খেলা হবে চট্টগ্রামে। এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে খেলা হবে বলে আগে জানানো হলেও অপ্রতুল সুযোগ-সুবিধার কারণে আন্তর্জাতিক ভেন্যু জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামেই হবে খেলা। চট্টগ্রাম পর্ব শেষে আবার দুই দিন বিরতির পর ৬ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা পর্বের দ্বিতীয় ভাগের খেলা শুরু হয়ে চলবে ১৫ ডিসেম্বর ফাইনাল পর্যন্ত।

২০১২ ও ২০১৩ সালে প্রথম দুটি আসরের পর নানা সমালোচনা-বিতর্কে বিপিএল বন্ধ ছিল আড়াই বছর। অনেক পরিমার্জন করে, আর্থিক পরিসর-ব্যপ্তি কমিয়ে, আকাশ ছোঁয়া ভাবনায় বদল এনে বাস্তবতার নিরিখে পরিকল্পনা করে অবশেষে মাঠে গড়াচ্ছে বিপিএলের তৃতীয় আসর।

পালা বদলের খাঁড়ায় কাটা পড়েছে একটি ছাড়া বিপিএলের আগের সব ফ্র্যাঞ্চাইজি। দেনা পরিশোধ না করায় বাতিল করা হয়েছে তাদের মালিকানা। নতুন মালিকানায় নতুন নামে মাঠে নামছে পাঁচটি দল, কেবল রংপুর রাইডার্সই আছে আগের নামে, আগের মালিকানায়।

বিতর্কমুক্ত বিপিএলের আশা
প্রথম দুই আসরের সব বিতর্ক, সমালোচনা পেছনে ফেলে নতুন পথচলায় বিপিএলকে নতুন করে উপস্থাপন করকে চায় বিসিবি। বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান বেশ কয়েকবারই বলেছেন, আগের সব পঙ্কিলতা ঝেড়ে ফেলে এবং ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে দৃঢ় পদক্ষেপে পথ চলতেই এতটা সময় নিয়ে আবার আয়োজন করা হচ্ছে বিপিএল।

ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক পরিশোধ নিয়ে বিতর্ক এড়াতে এবার বাংলাদেশের বাজার ও বাস্তবতা বিবেচনায় বিভিন্ন ক্যাটেগরিতে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে ক্রিকেটারদের। পারিশ্রামিকের অর্থ নিশ্চিত করতে আগেই ফ্র্যাঞ্চাইজিদের কাছ থেকে ব্যাংক গ্যারান্টি নিয়ে রেখেছে বিসিবি।

ফিক্সিংসহ অনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে ক্রিকেটারদের বিরত রাখতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বিসিবি। আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টগুলোর মতোই প্রতিটি টিম হোটেলে রাখা হচ্ছে আকসু সদস্যদের। সচেতনতা ও শিক্ষামূলক কার্যক্রমও চলছে নিয়মিত। প্রতিটি দলের ক্রিকেটার, টিম ম্যানেজমেন্ট, কর্মকর্তাদের নিয়ে দুই দফায় সচেতনামূলক ক্লাস নিয়েছেন আকসু কর্মকর্তারা।

শনিবারই তেমনই একটি ক্লাস শেষে বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের দলপতি মাশরাফি বিন মুর্তজা এই উদ্যোগের প্রশংসা করলেন।

“আশরাফুলকে নিয়ে বানানো একটা সচেতনতামূলক ভিডিও দেখানো হয়েছে আমাদের। কিভাবে বল বয় থেকে শুরু করে আস্তে আস্তে খ্যাতির চূড়ায় পৌঁছেছিল আশরাফুল এবং ভুল পথে পা বাড়ানোয় সেখান থেকে পতন, সেটা দেখানো হয়েছে। আমি মনে করি, বিশেষ করে জুনিয়ার ক্রিকেটারদের অনেক কিছু শেখার আছে এখান থেকে।”
মাশরাফির বিশ্বাস, এবার বিতর্কমুক্ত থাকবে বিপিএল।

“আসলে কেউ এসব করতে চাইলে তাকে রোখা মুশকিল। তবে বিসিবি নিজেদের চেষ্টা করে যাচ্ছে, এটা খুব ভালো দিক। অনেক উদ্যোগই নিয়েছে তারা। আশা করি, এসব উদ্যোগ ফলপ্রসূ হবে। ভালো-মন্দে উপলব্ধি সবাই করতে পারব।”

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে
আগামী মার্চ-এপ্রিলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর বসছে ভারতে। সেই টুর্নামেন্টের জন্য ভালো একটি প্রস্তুতির আশা করা হচ্ছে এবারের বিপিএল দিয়ে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি রংপুর রাইডার্সের হয়ে খেলতে এসে শনিবার সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশ কিছু ভালো ক্রিকেটার পেতে পারে এই টুর্নামেন্ট থেকে।
বাংলাদেশের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাশরাফির কণ্ঠেও আশার সুর।

“আমরা আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে খুব ভালো করতে পারি না কারণ ঘরোয়া ক্রিকেটে টি-টোয়েন্টি একদমই খেলা হয় না। গত আড়াই বছরে কোনো ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি হয়নি। টি-টোয়েন্টির উপযোগী ক্রিকেটারও তাই বেরিয়ে আসেনি। এবার বিপিএল বাংলাদেশের জন্য খুব ভালো সময়ে হচ্ছে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য দারুণ প্রস্তুতি হবে। আশা করছি, কার্যকরী কিছু ক্রিকেটারও পাব আমরা।”

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

ক্রীড়া এর অারো খবর