শরীরে আঁকা সেই ট্যাটুতে চলবে স্মার্টফোন!
শরীরে আঁকা সেই ট্যাটুতে চলবে স্মার্টফোন!
স্টাফ রিপোর্টার
২০১৬-০৮-২১ ০৭:১৬:৩৪
প্রিন্টঅ-অ+


ফ্যাশনের জন্যই শরীরে ট্যাটু আঁকে অনেকে। শরীরে আঁকা সেই ট্যাটু দিয়ে ফোনও চালানো সম্ভব- এমন ধারণা নিয়ে কাজ করে সাফল্য পেয়েছেন গবেষকরা।

শরীরের চামড়ায় লাগানো অস্থায়ী ট্যাটু দিয়ে স্মার্টফোন চালানোর ব্যবস্থা করতে যাচ্ছেন গবেষকরা। এ নিয়ে প্রাথমিক গবেষণা শেষে একটি নমুনা (প্রোটোটাইপ) সংস্করণ তৈরি করা হয়েছে। এমআইটি মিডিয়ার ল্যাবের একদল পিএইচডি গবেষক ও মাইক্রোসফট রিসার্চের একদল গবেষক যৌথভাবে এই ট্যাটু তৈরি করেছেন। অস্থায়ী এই ট্যাটুর মাধ্যমে টাচপ্যাডের বা টাচস্ক্রিনের স্মার্টফোন ব্যবহার করা যাবে। এ খবর জানিয়েছে প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জ এবং দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট।

এই ট্যাটুটির নাম রাখা হয়েছে ডুয়ো স্ক্রিন। আগামী মাসে এটি প্রদর্শন করা হতে পারে। গবেষকরা বলেছেন, যেকোনও গ্রাফিকস সফটওয়্যার ব্যবহার করে একটি সার্কিটের নকশা করতে হবে প্রথমে। আর এর ভেতরে জুড়ে দেওয়া হবে সোনালি তার যা বিদ্যুৎ পরিবাহী। এর মাধ্যমেই শরীরে লাগানো ট্যাটুটিকে একটি টাচপ্যাডে পরিণত করা সম্ভব। এছাড়া একে আরও কিভাবে ফোনের সঙ্গে যুক্ত করা যায় তা নিয়ে আরও বিস্তারিত গবেষণা করছেন গবেষকরা।

ট্যাটুর ওপর হাত বোলালেই সেটা ফোনের স্ক্রিন কাজ করবে। ফলে দূর থেকেই টাচ স্ক্রিনটিকে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। এছাড়া এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে ট্যাটুর মধ্যে এলইডি বাতির সাহায্যে আলো জ্বালানো যাবে। এতে ট্যাটুগুলো হবে আরো আকর্ষণীয়। তবে এ ধরনের গবেষণা এবারই প্রথম নয়। ২০১০ সালেও এরকম এক গবেষণা চালিয়েছিলেন পেনসিলভেনিয়ার কার্নেগি মেলন ইউনিভার্সিটির এক ছাত্র। সেই প্রকল্পেও সহযোগী ছিল মাইক্রোসফট রিসার্চ।

স্ক্রিনপুট নামের ওই গ্যাজেটটি দিয়ে হাতের ওপর টাচস্ক্রিনের মতো করে ছবি আঁকার ব্যবস্থা করা হয়েছিল।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি এর অারো খবর