কন্যা সন্তানের বাবা হলেন গুলশান হামলায় নিহত এসি রবিউল করিম
কন্যা সন্তানের বাবা হলেন গুলশান হামলায় নিহত এসি রবিউল করিম
স্টাফ রিপোর্টার
২০১৬-০৮-০২ ০৮:১৯:৪৫
প্রিন্টঅ-অ+


স্বামী হারানোর ক্ষত এখনও শুকায়নি। ফিরে ফিরে আঘাত করছে গুলশান হামলায় নিহত পুলিশ কর্মকর্তা রবিউল করিমের স্ত্রীকে। স্বামী হারানোর ঠিক একমাস পূর্ণ হলো আজ। আর আজই তার কোল জুড়ে আসলো এক কন্যা সন্তান। যে কোনও দিন পাবে না বাবার স্নেহ-মমতা। তা ভেবেই শোকে স্তব্ধ রবিউলের স্ত্রী। সদ্যজাত সন্তানের মুখ দেখার আনন্দ নিমিষেই যেন বিষাদে পরিণত হচ্ছে।

৩১ জুলাই রাত ১২টা। সাভারের একটি হাসপাতালে কন্যা সন্তানের জন্ম দেন ডিবির সহকারী কমিশনার (এসি) নিহত রবিউল করিমের স্ত্রী। একমাস আগে ররবিউল গুলশানের হলি আর্টিজানের হামলায় নিহত হয়েছেন।

রবিউলের ভাই সামস বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, সোমবার সকালে সিজার হওয়ার কথা থাকলেও জরুরি ভিত্তিতে রাতে নিয়ে আসা হয়। ১২টার পরপরই তার অপরারেশন হয়। বাচ্চার ত্বকে সামান্য সমস্যা আছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

রবিউলের সাত বছরের একটি ছেলে আছে। তার গ্রামের বাড়ি মানিকগঞ্জের কাটিবাড়ি।

রবিউলের মামা কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘আমরা গুলি লাগার খবর পেয়ে সাভার থেকে রওনা দিই। পথেই জানতে পারি রবিউল মারা গেছে।’

রবিউল কেমন ছিলেন জানতে চাইলে তার বন্ধু স্বজনদের মুখে তার রেখে যাওয়া অসমাপ্ত কাজগুলোর কথা শোনা যায়। তার স্বপ্নগুলো জানা যায়। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র থাকাকালেই প্রতিবন্ধী শিশুদেরকে সমাজের মূলস্রোতের সঙ্গে যুক্ত করার স্বপ্ন দেখতেন রবিউল। তাই বন্ধুদের নিয়ে ২০০৬ সালে মানিকগঞ্জের কাটিগ্রামে প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য প্রতিষ্ঠা করেন ‘ব্লুমস’ নামের একটি স্কুল।

রবিউলের ছোট ভাই শামসুজ্জামান জানান, তার মায়ের দান করা জমিতেই গড়ে তোলেন প্রতিষ্ঠানটি। কয়েক বছরের মধ্যেই স্কুলটি গ্রামের খেটে খাওয়া মানুষের পরম আস্থা অর্জন করে। স্কুলটি যখন বড় স্বপ্নের পথে এগোচ্ছিল তখনই হারাতে হলো এর অন্যতম অভিভাবককে।

গ্রামবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সুযোগ পেলেই রবিউল চলে যেতেন ওই স্কুলে। বাড়ি বাড়ি গিয়ে খোঁজ নিতেন প্রতিবন্ধী শিশুদের।

প্রসঙ্গত, গত ১ জুলাই রাতে হলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে হামলা চালায় জঙ্গিরা। তাৎক্ষণিকভাবে সেখানে অভিযান চালাতে গিয়ে জঙ্গিদের ছোড়া বোমা ও গুলিতে নিহত হন বনানী থানার ওসি সালাহ উদ্দিন খান ও গোয়েন্দা পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার রবিউল করিম। এছাড়াও ১৭ বিদেশিসহ ২০ জনকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে জঙ্গিরা। পরদিন যৌথবাহিনীর কমান্ডো অভিযানে নিহত হয় পাঁচ জঙ্গিসহ ছয়জন।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর