আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন গ্রহণ করলেন হিলারি
আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন গ্রহণ করলেন হিলারি
স্টাফ রিপোর্টার
২০১৬-০৭-২৯ ২০:৫১:২৭
প্রিন্টঅ-অ+


যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিসেবে আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন গ্রহণ করলেন সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাতে ফিলাডেলফিয়ায় অনুষ্ঠিত দলীয় কনভেনশনে মনোনয়ন গ্রহণের ঘোষণা দেন তিনি।
হিলারি বলেন, ‘আমেরিকার অঙ্গীকারের প্রতি বিনয়....দৃঢ় সংকল্প.....এবং সীমাহীন আস্থা রেখে বলছি যে আমি মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে আপনাদের মনোনয়ন গ্রহণ করছি’। আমেরিকানদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার প্রতি গুরুত্বারোপ করেছেন হিলারি। তিনি বলেন, ‘আমেরিকায় যখন কোনও প্রতিবন্ধকতা দেখা দেয়, তখন সেই প্রতিবন্ধকতাই সবাইকে চলার পথ দেখায়।’
হিলারি আরও বলেন, ‘যেখানে কোনও ছাদ নেই, আকাশই সেখানে সীমানা।’ তিনি যোগ করেন, ‘আমেরিকার প্রতিটি প্রজন্ম আমাদের দেশটাকে মুক্ত, স্বচ্ছ আর শক্তিশালী করতে একত্রিত লড়াই করেছে। সে কারণেই ঐক্যেই আমাদের শক্তি।’
উল্লেখ্য, মঙ্গলবার ফিলাডেলফিয়ায় ডেমোক্র্যাটিক ন্যাশনাল কনভেনশনে দলীয় প্রতিনিধিরা আনুষ্ঠানিকভাবে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং সিনেটর হিলারিকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন দেন। কনভেনশনে ৫০টি রাজ্যের সবকটি তার পক্ষে অবস্থান নেয়। ৮ নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া নির্বাচনে জয়ী হলে হিলারিই হবেন দেশটির প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট।

এর আগে ১৮৭২ সালে প্রথমবারের মতো কোনও নারী প্রার্থী যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়েছিলেন। কিন্তু তখনও পর্যন্ত নারীদের ভোটাধিকার ছিল না। ওই নারী প্রার্থী একটিও ইলেকটোরাল ভোট পাননি। ১৯২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নারীরা ভোটাধিকার পায়। দেশটির ২৪০ বছরের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত যে চল্লিশজন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন, তাদের সবাই পুরুষ। এমনকি মার্কিন দ্বি-দলীয় নির্বাচনী ব্যবস্থায় কোনও দলই নারীদের প্রার্থী হিসেবে বাছাই করেনি। আর তাই প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত না হলেও ইতিহাসের হাতছানি রয়েছে হিলারির সামনে।

হিলারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য রিপাবলিকান পার্টি থেকে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার মনোনয়ন গ্রহণের ঘোষণা দিয়ে ট্রাম্পের সমালোচনা করেন হিলারি। তার অভিযোগ, ট্রাম্প মার্কিন জনগণকে একে অপর থেকে এবং পুরো বিশ্ব থেকে বিভাজিত করার চেষ্টা করছেন।

এর আগেরদিন বুধবার ন্যাশনাল কনভেনশনে দেওয়া ভাষণে হিলারিকে জয়ী করার পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য ডেমোক্র্যাটদের প্রতি আহ্বান জানান বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। বুধবার ফিলাডেলফিয়ায় ডেমোক্র্যাটিক ন্যাশনাল কনভেনশনে দেওয়া ভাষণে এ আহ্বান জানান তিনি।
ফরাসি সংবাদমাধ্যম এএফপি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, কনভেনশনে ৪৫ মিনিটের ভাষণ দেন ওবামা। সেসময় ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি তার সঙ্গে মঞ্চে যোগ দিলে গোটা কনভেনশন এলাকা হাজার হাজার মানুষের করতালিতে ভরে ওঠে। হিলারিকে প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য সবচেয়ে যোগ্য উল্লেখ করে ওবামা বলেন, ‘আমি আস্থার সঙ্গে বলতে পারি কোনও নারী কিংবা পুরুষের হিলারির চেয়ে বেশি যোগ্যতা ছিল না। আমি কিংবা বিল ক্লিনটন কারোরই যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে হিলারির চেয়ে বেশি যোগ্যতা নেই।’

ওবামা বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের ভবিষ্যতের ব্যাপারে আমি আগের চেয়ে অনেক আশাবাদী।’

রিপাবলিকানদের কোনও অর্থনৈতিক ও পররাষ্ট্র নীতিমালা নেই বলে সমালোচনা করেন ওবামা। ২০১৬ সালের নির্বাচনকে ঘিরে রিপাবলিকানরা ঘৃণা ও বিদ্বেষ ছড়ানোর চেষ্টা করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘গত সপ্তাহে যে কনভেনশনে ট্রাম্পকে রিপাবলিকান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে সেখানে সমস্যা সমাধান নিয়ে কোনও আলোচনা হয়নি। সেখানে কেবল দোষারোপ, অসন্তোষ, ক্ষোভ ও বিদ্বেষের ছড়াছড়ি ছিল’।

ট্রাম্পকে ভরসা না করার আহ্বান জানিয়ে ওবামা বলেন, ‘যে লোক জীবনের ৭০ বছর ধরে শ্রমিক শ্রেণির মানুষের দিকে দৃষ্টিপাত করেননি, তিনি হঠাৎ করে আপনাদের চ্যাম্পিয়ন হবেন, কণ্ঠস্বর হবেন, তা কি বিশ্বাস করা যায়? যদি আপনাদের তাই মনে হয় তাহলে তাকে ভোট দিন। কিন্তু আপনাদের কেউ যদি মনে করেন অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি দরকার, সবার জন্য আরও অনেক সুযোগ সৃষ্টি করা দরকার, তবে বলবো তাকে (ট্রাম্পকে) কখনওই বেছে নেবেন না।’

সূত্র: গার্ডিয়ান, এএফপি, বিবিসি, সিএনএন

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিদেশ এর অারো খবর