রবি-এয়ারটেল একীভূতকরণে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে
রবি-এয়ারটেল একীভূতকরণে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে
২০১৬-০৭-২৫ ০৪:৪৭:০০
প্রিন্টঅ-অ+


১০০ কোটি টাকা সংযুক্তি ফি নির্ধারণের মাধ্যমে রবি-এয়ারটেল একীভূতকরণে সম্মতির চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

পিডিটি’র এক কর্মকর্তা বাসসকে জানান, রবি-এয়ারটেল একীভূতকরণে সম্মতির জন্য ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ (পিডিটি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আজ প্রস্তাবের একটি সারসংক্ষেপ পাঠিয়েছে।

এছাড়া একীভূতকরণ ফি’র বিষয়ে তিনি জানান, পিডিটি প্রতি টু’জি তরঙ্গ মেগাহার্জ’র জন্য ৩৩.৮ কোটি টাকা নির্ধারণ করেছে।

এর আগে গত ১৩ জুলাই অর্থমন্ত্রী এ এম এ মুহিতের সভাপতিত্বে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় একীভূতকরণের ফি ও তরঙ্গের মূল্য চূড়ান্ত করা হয়।

দেশের টেলিযোগাযোগ খাতে এটি প্রথমবার একীভূত করার প্রস্তাব, তাতে পিডিটি বিভিন্ন শর্ত আরোপ করেছে।
বর্তমানে এয়ারটেল ১৫ মেগাহার্টজ’র টু’জি তরঙ্গ ব্যবহার করছে এবং এর লাইসেন্সের মেয়াদ রয়েছে ২০২০ সাল পর্যন্ত।

শর্ত অনুযায়ী, একীভূত হবার পরে টেলিকম রেগুলেটরের কাছে মানবসম্পদের ব্যবস্থাপনার ওপর একটি নির্দিষ্ট পরিকল্পনা জমা দিতে হবে। তাতে তারা (রবি) কর্মচারীদের চাকরির নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

রবি ও এয়ারটেল ২০১৫ সালের আগস্ট মাসে একীভূত হওয়ার সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা শুরু করে এবং গত ২৮ জানুয়ারি মাসে এই মর্মে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে। তারা যদি একীভূত হয় তাহলে এটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম অপারেটর হবে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর