আজ শুরু হচ্ছে বিপিএল
আজ শুরু হচ্ছে বিপিএল
সংগীতা ঘোষ
২০১৫-১১-১৯ ১০:১৩:২৭
প্রিন্টঅ-অ+


আজ শুক্রবার শুরু হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) তৃতীয় আসর। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শুরু হবে এই আয়োজন। খেলা মাঠে গড়ানোর জন্য অবশ্য অপেক্ষা করতে হবে আরো দুদিন। তার আগে আনুষ্ঠানিক অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে দলগুলো।

অনুশীলনের ফাঁকে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন সিলেট সুপারস্টার্সের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। বিপিএলের মতো আসরে খেলার চাপ কেমন এমন প্রশ্নে মুশফিক বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেট না হলেও বিপিএলে খেলোয়াড়দের ওপর প্রচুর চাপ থাকে। কারণ দলগুলো পারিশ্রমিক দিয়ে খেলোয়াড়দের দলে নেয়। ফলে খেলোয়াড়দের ওপর তাদের জন্য কিছু করার তাড়া থাকে।’

বিপিএলের গত পর্বে ১৩ ম্যাচে ৪৪০ রান করেছিলেন মুশফিক। ওই আসরে তিনিই ছিলেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। এবারো কি পরিকল্পনা সে রকমই; এমন প্রশ্নে বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক বলেন, ‘সব সময়ের মতো ব্যক্তিগত কিছু লক্ষ্য অবশ্যই আছে। তবে তার আগে দলীয় লক্ষ্যটাই বড়। আমরা চাই দল হিসেবে খেলতে। সর্বশেষ বিপিএলে সিলেটের যে অপূর্ণতা ছিল, এবার চেষ্টা থাকবে তা পূরণ করার।’ ব্যক্তিগত লক্ষ্য পূরণের পাশাপাশি সিলেটকে টুর্নামেন্টের সেরা দুই দলের একটি হিসেবে দাঁড় করানোর কথা বলেন মুশফিক।

বিপিএলের গত পর্বেও সিলেটভিত্তিক দলে ছিলেন মুশফিক। তখন অবশ্য দলের নাম ছিল সিলেট রয়্যালস। মালিকানায় পরিবর্তন আসায় বদলে গেছে দলের নামও। এবারের দলটা কেমন হলো তা জানিয়ে মুশফিক বলেন, ‘আমি বলব বিপিএলের সব দলই খুব ভালো হয়েছে। প্রতিটি দলেই ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যারা ভালো পারফর্ম করেছে তারাই খেলছে। আমার মনে হয়, এবার আসল খেলা হবে মাঠে। সেখানে যারা ভালো খেলবে তারাই সফল হবে। আমার দল সব দিক থেকেই ভালো। বিদেশি খেলোয়াড়রা চলে এলে আমরা আরো শক্তিশালী হব।’ টানা দ্বিতীয়বার সিলেটে খেলার সুযোগ পাওয়াটাকে সম্মানের ব্যাপার বলে মন্তব্য করেন মুশফিক।

নিজের দল নিয়ে সন্তুষ্ট হলেও মুশফিকের মন খারাপ হতে পারে রুবেল হোসেনের জন্য। ইনজুরির কারণে আপাতত দলের বাইরে থাকা রুবেলকে শুরুর দিকে পাচ্ছেন না মুশফিক। এ প্রসঙ্গে তার মন্তব্য, ‘এটা আমাদের জন্য কিছুটা পিছনে পড়ে যাওয়ার মতো ব্যাপার। কারণ রুবেল বাংলাদেশের সেরা বোলারদের একজন। দুঃখজনক হলো ইনজুরির কারণে সে জাতীয় দলে খেলতে পারছে না। আশা করছিলাম ওকে প্রথম থেকে পাব। কিন্তু ইনজুরির ওপর কারো হাত নেই। আশা করছি যারা দলে থাকবে তারা ওর অভাবটা পূরণ করে দিতে পারবে।’ এ সময় বিপিএলকে তরুণ ক্রিকেটারদের উঠে আসার সিঁড়ি বলে মন্তব্য করেন মুশফিক। একইসঙ্গে তিনি বলেন যে, ‘টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের এই আসরে শুধু তরুণ ক্রিকেটাররা ভালো করবে; ব্যাপারটা এ রকম নয়। টি-টোয়েন্টিতে অভিজ্ঞরাও দারুণভাবে কার্যকর হতে পারেন। কারণ টি-টোয়েন্টির সাফল্যের নানা সূত্র জানা থাকে তাদের।’

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

ক্রীড়া এর অারো খবর