নরখাদক মানুষের প্রমাণ মিলল!
নরখাদক মানুষের প্রমাণ মিলল!
২০১৬-০৭-১৫ ০৬:০৯:৫০
প্রিন্টঅ-অ+


প্রস্তরযুগে, আমাদের পূর্বপুরুষদের খাবারের অভ্যাস নিয়ে অনেক ধরনের ধারণা প্রচলিত আছে। মূলত ভাবা হতো যে, সেই সময় আমাদের পূর্বপুরুষরা সবজি, ফলমুল, বাদাম, নানা রকম শেকড়বাকর এবং পশু-পাখির মাংস খেয়ে বেঁচে থাকতেন।

তবে প্রস্তর যুগে আদিম মানুষ নরমাংসভোজী ছিল বলে অনেকে অনুমান করলেও তার সপক্ষে এতদিন তথ্যপ্রমাণ সেভাবে পাওয়া যায়নি। কিন্তু এবার প্রমাণ মিলল, নিজেদের মাংস নিজেরাই খেত আদিম মানুষ।

আসলে মানব সভ্যতার কোন পর্বে যে ঠিক কী লুকিয়ে থাকতে পারে, তা কল্পনারও অতীত। মাঝে মাঝেই একেকটা অধ্যায় চলে আসে চোখের সামনে এবং বিস্ময়ে হতবাক করে দেয়।

সম্প্রতি বেলজিয়ামের এক গুহায় নিয়েনডারথাল মানুষের অস্থি খুঁজে পাওয়ার পর বিজ্ঞানীরা দাবি করছেন, সেই সময়ে মানুষ নরখাদক ছিল! নিয়েনডারথাল মানুষরা নিজেদের মাংস খেতে দ্বিধা বোধ করত না।

ইতিহাস বলছে, ৪ লাখ বছর আগে এই মানবপ্রজাতি ইউরোপ আর পশ্চিম এশিয়ার নানা জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে। এবং ৪০ হাজার বছর আগে তারা লুপ্ত হয়ে যায় পৃথিবী থেকে। সেই জন্যই তাদের নিয়ে কৌতূহলেরও অন্ত নেই। মনে করা হয়, এই নিয়েনডারথালদের জীবনযাপনের সূত্রটি খুঁজে পেলে মানবসভ্যতার ইতিহাসের এক অনাবিষ্কৃত অধ্যায়ে আলোকপাত হবে।

সেই আলোকপাতের ধারাই এবার চমকে দিল পৃথিবীকে। বেলজিয়ামের গয়েট গুহায় চারজন প্রাপ্তবয়স্ক এবং একজন শিশুর অস্থি পরীক্ষা করে জানা গেল, নিয়েনডারথাল মানুষ নরখাদক ছিল। ৪০,৫০০ থেকে ৪৫,৫০০ বছর আগে মৃত এই মানুষদের হাড়ের ৯৯টি টুকরো পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা।
বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, নিয়েনডারথাল মানুষ অন্যকে হত্যা করে তার মাংস খেত না। গোষ্ঠীর মধ্যে কারো মৃত্যু হলে তখনই তার মাংস খাওয়া হত।

এই দাবীর সপক্ষে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, গুহায় যে হাড়গুলো পাওয়া গেছে, সেগুলো পরীক্ষা করে দেখা গেছে যে ওগুলো তীক্ষ্ণ পাথরের ফলা দিয়ে আঘাত করে করে শরীর থেকে ভেঙে নেওয়া হয়েছিল। পাথর দিয়ে হাড় ফাটিয়ে বের করে নেওয়া হয়েছিল মজ্জা। তাছাড়া যে দাঁত পাওয়া গিয়েছিল, সেগুলো পরীক্ষা করেও তার মধ্যে মানুষের মাংস খাওয়ার প্রমাণ মিলেছে!

অবশ্য, এই দাবি যে নিয়েনডারথালদের নিয়ে এই প্রথম উঠল, তা কিন্তু নয়। এর আগে যখন ১৯৯০ সালে ফ্রান্সের এক গুহা থেকে নিয়েনডারথাল মানুষের অস্থি আবিষ্কৃত হয়েছিল, তখনও ঠিক এই কথাই বলেছিলেন বিজ্ঞানীরা।
অনেক গবেষক যদিও দাবি করে থাকেন, এই মৃত মানুষের মাংস খাওয়াটা নিয়েনডারথালদের অভ্যাস নয়, বরং একটা প্রথা।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি এর অারো খবর