চোখের ইশারায় স্মার্টফোন!
চোখের ইশারায় স্মার্টফোন!
২০১৬-০৭-০৫ ১৭:৩১:০৬
প্রিন্টঅ-অ+


হাতের আঙুল দিয়ে বাটন টিপে মোবাইল ব্যবহার এখন সেকেলে। কারণ বাটন টিপার পরিবর্তে বাটন স্পর্শ করে মোবাইল ব্যবহার এখন বেশি প্রচলিত। টাচস্ক্রিন প্রযুক্তির এসব মোবাইল স্মার্টফোন হিসেবে পরিচিত।

তবে আঙুলের স্পর্শে মোবাইল ব্যবহারও বোধহয় এবার সেকেলে হতে যাচ্ছে। কারণ মাইক্রোসফট কাজ করছে আঙুলের ইশারায় ডিভাইস ব্যবহারের প্রযু্ক্তি নিয়ে। অর্থাৎ হাতের ইশারায় কম্পিউটার, স্মার্টফোন চালানো হবে।

শুধু তাই নয়, আঙুলের ইশারা প্রযুক্তির চেয়ে আরো এক ধাপ এগিয়ে চোখের ইশারায়ও নাকি এবার স্মার্টফোন ব্যবহার করা যাবে! লক খোলা, গেম খেলা, ছবি তোলা, অ্যাপস চালানো-সবই করা যাবে চোখ দিয়ে!

চোখের ইশারায় স্মার্টফোন নিয়ন্ত্রণের এই প্রযুক্তি নিয়ে যৌথভাবে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি) ও জার্মানির ম্যাক্স প্ল্যাঙ্ক ইনস্টিটিউট ফর ফরমেটিক্সের একদল গবেষক।

গবেষকরা গেজ ক্যাপচার নামক একটি অ্যাপ তৈরি করেছেন। এই অ্যাপটি একজন ব্যবহারকারীর চোখ নির্ভুলভাবে স্ক্যান করতে পারে। অ্যাপটির কাজ হচ্ছে, ব্যবহারকারী তার ফোনের স্ক্রিনের কোনদিকে তাকাচ্ছেন তা নির্ধারণ করা এবং সেই অনুযায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ করা। উদাহরণস্বরুপ বলা যেতে পারে, আপনি আপনার মোবাইল ক্যামেরায় কোনো ছবি তুলতে চান। তাহলে আপনাকে আপনার মোবাইল স্ক্রিনে ক্যামেরার আইকনটির দিকে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থাকতে হবে।

আপনার দৃষ্টি অনুসরণ করে অ্যাপটি ক্যামেরাটি অন করে দেবে। তারপর অপশন আসবে ‘আপনি কী ছবি তুলতে চান?’ অপশন- ‘হ্যাঁ’ এবং ‘না’। আপনি ‘হ্যাঁ’ অপশনটির দিকে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থাকলেই উঠে যাবে ছবি।

তবে এই সফটওয়্যারটি আরো নিখুঁত করে গড়ে তোলার জন্য কাজ করছেন গবেষকরা। অ্যাপটি এখনো পরীক্ষামূলক পর্যায়ে রয়েছে। এখন পর্যন্ত দেড় হাজার মানুষ পরীক্ষামূলকভাবে গেজ ক্যাপচার অ্যাপটি ব্যবহার করেছেন। তবে গবেষকদের দরকার মোট ১০ হাজার ব্যবহারকারীর তথ্য। এসব তথ্য বিশ্লেষণ করে অ্যাপটিকে আরো উন্নতমানের করে তৈরি করতে পারবেন তারা।

গবেষকরা আশা করছেন, এই অ্যাপ তার প্রত্যাশিত সাফল্যই পেতে চলেছে। অর্থাৎ ভবিষ্যতে চোখের ইশারায় চালাতে পারবেন স্মার্টফোন!

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি এর অারো খবর