আইওটি: এগিয়ে জার্মানি
আইওটি: এগিয়ে জার্মানি
২০১৬-০৬-৩০ ২০:৫২:৫৩
প্রিন্টঅ-অ+


ইন্টারনেটে যুক্ত যন্ত্র বা ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি) তথ্যপ্রযুক্তিতে যে বড় ধরনের প্রভাব ফেলতে যাচ্ছে, তা এত দিনে বোঝাই যাচ্ছে। যেকোনো যন্ত্রে ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে যেকোনো জায়গা থেকে নিয়ন্ত্রণের প্রযুক্তি এটি।

আইওটি-ভিত্তিক প্রযুক্তির উদ্ভাবনে যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালি এত দিন অগ্রণী ভূমিকা পালন করে এসেছে। তবে এখন মনে হচ্ছে নেতৃত্ব বদলের সময় হয়েছে। বোস্টন কনসালটিং গ্রুপের (বিসিজি) নতুন এক জরিপের ফলাফলে বলা হচ্ছে, যদিও যুক্তরাষ্ট্র আইওটিতে প্রচুর অর্থ বিনিয়োগ করছে তবে এগিয়ে যাচ্ছে জার্মানি।

কারিগরি শিল্পনির্ভর ও বিলাসবহুল গাড়ি উৎপাদনকারী দেশ হিসেবে জার্মানি বেশি পরিচিত। তাদের সে প্রচেষ্টার সঙ্গে এখন যোগ হয়েছে আইওটি। পণ্য উৎপাদনকারী ৩০০ জার্মান ও মার্কিন প্রতিষ্ঠানের নির্বাহীদের ওপর জরিপ চালিয়েছে বিসিজি। প্রতিষ্ঠানগুলো কারখানায় ডিজিটাল ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে কি না, তা জানতে চাওয়া হয়েছিল এই নির্বাহীদের কাছে। তাতে দেখা যায় জার্মানরা বেশ এগিয়ে আছে।

জরিপের ফলাফল অনুযায়ী জার্মান ও মার্কিন উৎপাদনকারী ১৭ শতাংশ প্রতিষ্ঠান ইতিমধ্যে তাদের প্রতিষ্ঠানে আইওটি প্রযুক্তি যোগ করেছে। কিন্তু ৪০ শতাংশের বেশি জার্মান ব্যবসায়ী বলেছেন যে তাঁরা আগামী দু-এক বছরের মধ্যে এটি করে ফেলবেন। অন্যদিকে একই কথা বলেছেন মাত্র ২৪ শতাংশ মার্কিন ব্যবসায়ী। ৩৯ শতাংশ জার্মান প্রতিষ্ঠান আগামী কয়েক বছরের মধ্যে স্বয়ংক্রিয় রোবট এবং এর সাহায্যকারী পদ্ধতিগুলো প্রয়োগ করতে চাচ্ছে, যা নিয়ে মাত্র ২০ শতাংশ মার্কিন প্রতিষ্ঠান উৎসাহী।

বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানই মূলত মানসিক শ্রমের ওপর নির্ভরশীল, যে অবস্থা খুব দ্রুতই পরিবর্তিত হবে। স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতি খুব তাড়াতাড়ি উৎপাদনশীল প্রতিষ্ঠানগুলোতে জায়গা করে নেবে। সেদিক থেকে জার্মানরা বেশ এগিয়ে গেছে। বিসিজির প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০২০ সাল নাগাদ সারা বিশ্বে আইওটি খাতে ৭ হাজার কোটি ডলার খরচ হবে।

এদিকে শুধু স্যামসাং সম্প্রতি ১২০ কোটি ডলার আইওটি খাতে বিনিয়োগ করছে। টাটা কলসালট্যান্সি জরিপে দেখা গেছে, যারা ২০১৪ সালে আইওটিতে বিনিয়োগ করেছে, তারা আগের বছরের তুলনায় ২৮.৫ শতাংশ বেশি লাভবান হয়েছে। সুতরাং আমেরিকা এ ব্যাপারে এখনই মনোযোগী না হলে ভবিষ্যতে তারা পিছিয়ে পড়তে পারে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিদেশ এর অারো খবর