"ইঞ্জিনিয়ার ছাড়া কোনো জাতির উন্নয়ন সম্ভব নয়"
"ইঞ্জিনিয়ার ছাড়া কোনো জাতির উন্নয়ন সম্ভব নয়"
২০১৬-০৬-২৪ ১৮:০২:২১
প্রিন্টঅ-অ+


ইঞ্জিনিয়ারদের দিকে যতই আঙুল তোলা হোক ইঞ্জিনিয়ার ছাড়া কোনো জাতির উন্নয়ন সম্ভব নয়। জাতিকে ইঞ্জিনিয়ারদের অবদানকে কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করতে হবে। মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।


বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদ আয়োজিত ইফতার মাহফিলে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু যে ৭৬৬ কোটি টাকার বাজেট দিয়েছেন বর্তমানে সে বাজেট গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ কোটি টাকায়। গত কয়েক বছরে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক গতিকে স্মরণ করিয়ে বিশ্বকে বাংলাদেশকে ফলো করার জন্য বলেছেন বারাক ওবামা।

বাংলাদেশের অগ্রগতির রূপকার ইঞ্জিনিয়াররা। ইঞ্জিনিয়ার ছাড়া উন্নয়ন সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, বাজেট বাস্তবায়নে এলজিইডি গ্রোথ সর্বোচ্চ।

জাতীয়ভাবে গড় বাজেট বাস্তবায়ন ৬১ শতাংশ হলেও এলজিইডি’র বাজেট বাস্তবায়ন সর্বোচ্চ ৭১ শতাংশ। ইঞ্জিনিয়ারদের কারণে এটা সম্ভব হয়েছে বলে জানান ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

কিছু ক্ষেত্রে ইঞ্জিনিয়ারদের বদনাম করা সোজা, কারণ তাদের কাজ দৃশ্যমান। অন্যরা ইঞ্জিনিয়ারদের চেয়ে ১০ গুণ কামাই করলেও তা দেখা যায় না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, ইঞ্জিনিয়ারদের কাজ দৃশ্যমান বলে তাদের বদনাম বেশি হয়। ইঞ্জিনিয়ারদের দিকে যতই আঙুল তোলা হোক ইঞ্জিনিয়ার ছাড়া কোনো জাতির উন্নয়ন সম্ভব নয়। জাতিকে ইঞ্জিনিয়ারদের অবদানকে কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করতে হবে। ইঞ্জিনিয়ারদের যখন ইন্টারভিউয়ের কথা আসে প্রধানমন্ত্রী তখন বলেন, ‘ওদের আবার ইন্টারভিউ কী? ওরা তো ইন্টারভিউ দিয়েই ভর্তি হয়। তারা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান।’

ইঞ্জিনিয়ারদের যেখানে এত গুরুত্ব দেওয়া হয়, তাদের কাছেও তো জাতি অনেক কিছু আশা করে। ইঞ্জিনিয়ারদের জাতিকে সেই অনুযায়ী কিছু দিতে হবে- যোগ করেন সমবায় মন্ত্রী।

তিনি বলেন, রূপকল্প বাস্তবায়নে কোনো জাতি এমনভাবে এগিয়ে যাচ্ছে না। রূপকল্পের টার্গেট বাস্তবায়নে ইঞ্জিনিয়ারদের অবদান হবে ৯০ শতাংশ।

অনুষ্ঠানে সংগঠনের সভাপতি প্রকৌশলী এম হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান, বুয়েটের সাবেক ভিসি প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম, সংসদ সদস্য প্রকৌশলী ফজলুল হক চান, আইইবি’র প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী কবির আহমেদ ভূঁইয়া প্রমুখ।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

প্রকৌশল সংবাদ এর অারো খবর