হাইতিকে ৭-১ গোলে হারিয়ে ছন্দে ফিরল ব্রাজিল
হাইতিকে ৭-১ গোলে হারিয়ে ছন্দে ফিরল ব্রাজিল
২০১৬-০৬-০৯ ২১:৩৭:২১
প্রিন্টঅ-অ+


দুর্বল হাইতিকে সামনে পেয়ে ছন্দে ফেরার সুযোগ ভালোভাবেই কাজে লাগিয়েছে ব্রাজিল। কোপা আমেরিকায় নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের দেশটিকে ৭-১ গোলে হারিয়েছে দুঙ্গার দল।

প্রথম ম্যাচে একুয়েডরের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করা ব্রাজিলের গোল উৎসবে হ্যাট্রিক করেন ফিলিপে কৌতিনিয়ো। জোড়া গোল করেন আরেক মিডফিল্ডার রেনাতো আগুস্তো।

অরল্যান্ডেতে বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার ভোরে শুরু হওয়া ম্যাচটি প্রথম থেকেই একচ্ছত্র নিয়ন্ত্রণ ছিল ব্রাজিলের। প্রথম গোলটি আসে চতুর্দশ মিনিটে। বল নিয়ে এগিয়ে

এক খেলোয়াড়কে কাটিয়ে ডি-বক্সের একটু বাইরে থেকে জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন কৌতিনিয়ো।

২৩তম মিনিটে বল নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেনি ডি-বক্সে ফাঁকায় থাকা আগুস্তো। তবে ২৯তম মিনিটে সহজ গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কৌতিনিয়ো। খুব কাছ থেকে জোনাসের বাড়ানো বল ফাঁকা জালে কেবল ঠেলে দিতে হয় লিভারপুলের ২৩ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডারকে।

নয় মিনিট পর হ্যাটট্রিক করার সুযোগ পেয়েছিলেন কৌতিনিয়ো। বল নিয়ে অনেকটা এগিয়ে উইলিয়ান বল বাড়িয়েছিলেন বাঁয়ে। ডি-বক্সের ভেতর থেকে কৌতিনিয়োর কোনাকুনি শট এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে খানিকটা দিক পাল্টানোর পর গোলরক্ষক ঠেকিয়ে দেন।

৩৫তম মিনিটে গোলরক্ষকের ভুলে তৃতীয় গোলটি খায় হাইতি। জনি প্লাসিডের থ্রো সোজা এসে পড়েছিল দানি আলভেসের কাছে। ব্রাজিল অধিনায়কের ক্রস থেকে হেডে বল জালে পাঠিয়ে দেন আগুস্তো।

বিরতির পর খানিকটা অনুজ্জ্বল জোনাসের বদলে দুঙ্গা মাঠে নামান গাব্রিয়েলেকে। কোচের আস্থার প্রতিদান দিতে বেশি দেরি করেননি সান্তোসের এই তরুণ ফরোয়ার্ড। ৫৯তম মিনিটে এলিয়াসের বাড়ানো বল ডি-বক্সের ভেতর থেকে বাঁ পায়ের নিখুঁত শটে দূরের পোস্ট দিয়ে বল জালে পাঠান ‘গাবিগোল’।

৬৭তম মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়ান লুকাস লিমা। আসভেসের মাপা ক্রসে জায়গা নিয়ে নিঁখুত হেডে গোলরক্ষকে ফাঁকি দেন কাসেমিরোর বদলি হিসেবে নামা সান্তোসের এই মিডফিল্ডার।

দুই মিনিট পরই পাল্টা আক্রমণে একটি গোল শোধ করেন জেমস মার্সেলিন।

৭৮তম মিনিটে প্রথমে গাব্রিয়েল ও পরে উইলিয়ানের শট ঠেকিয়ে দেন প্লাসিড। দুই মিনিট পর ঠেকান লুকাস লিমার শটও। তবে ব্রাজিলকে বেশিক্ষণ আটকে রাখতে পারেননি তিনি। ৮৬তম মিনিটে ভুল পাসে বল পেয়ে সামনে এগিয়ে ডি-বক্সের একটু বাইরে থেকে শটে তাকে পরাস্ত করেন আগুস্তো।

যোগ করা সময়ে আসে ম্যাচের সবচেয়ে দর্শণীয় গোলটি। ডি-বক্সের অনেক বাইরে থেকে দুর্দান্ত এক শটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন কৌতিনিয়ো। জাতীয় দলের হয়ে এটাই তার প্রথম হ্যাটট্রিক।

ব্রাজিলের পরের ম্যাচ পেরুর বিপক্ষে ফক্সবরোতে; বাংলাদেশ সময় আগামী সোমবার সকাল সাড়ে ছয়টায়।

হাইতি ম্যাচের আগের দিন দুঙ্গা জানিয়েছিলেন, ধীরে ধীরে উন্নতি করবে তার দল। প্রথম ম্যাচে ‘বিরক্তিকর’ ফুটবল খেলা ব্রাজিলের পরের ম্যাচে উন্নতিটা চোখে পড়ার মতোই। তবে পেরুর বিপক্ষে ‘বি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে বোঝা যাবে কোপা আমেরিকায় নবম শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে আসা পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের সামর্থ্য।

গ্রেনডেইলে গ্রুপের পরের ম্যাচে দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও পেরুর সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছে একুয়েডর।

দুই মিডফিল্ডার ক্রিস্তিয়ান কুয়েভা ও এদিসন ফ্লোরেসের গোলে ম্যাচের ১৩ মিনিটের মধ্যে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় পেরু।

এনের ভালেন্সিয়ার গোলে ৩৯তম মিনিটে ব্যবধান কমায় একুয়েডর। আর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর দিকে করা মিলার বোলানোসের গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ব্রাজিলের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করা দলটি।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

ক্রীড়া এর অারো খবর